Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

রাবিতে করোনাভাইরাস শনাক্তের হার ৫৭.৩৫%

বুধবার দুপুরে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় সশরীরে ক্লাস বন্ধ করে অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার দাবি জানিয়েছে রাবি শিক্ষক সমিতি

আপডেট : ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১০:২৯ এএম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ৬৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩৯ জনেরই নমুনায় করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) রাতে রাবির জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের সবাইকে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি প্রশাসনের নির্দেশ অনুসরণের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের প্রধান চিকিৎসক তবিবুর রহমান প্রধান জানান, গত মঙ্গলবার ও বুধবার আমরা পিসিআর ল্যাব টেস্টের জন্য ৬৮টি নমুনা সংগ্রহ করেছিলাম। এর মধ্যে ৩৯টি ফলাফল পজিটিভ এসেছে। যা মোট নমুনার ৫৭.৩৫%।

তিনি আরও বলেন, “এটি নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সকলের মধ্যেই করোনাভাইরাসের ধরনের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে। যে যেখানে আছে, সে সেখানেই অবস্থান করবে। আর যারা আক্রান্ত হচ্ছেন, তারা চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকবেন। আমরা আশা করছি, বর্তমানে যে ভ্যারিয়েন্টের দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছে, এই ভ্যারিয়েন্টে কারও তেমন কোনো ক্ষতি হবে না।”

এর আগে বুধবার দুপুরে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় সশরীরে ক্লাস বন্ধ করে অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার দাবি জানায় রাবি শিক্ষক সমিতি। 

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. কুদরত-ই-জাহান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই দাবি জানানো হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, দেশে গত কিছুদিন ধরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার হার বৃদ্ধি পাচ্ছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিদিন শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা-কর্মচারী মিলিয়ে প্রায় চল্লিশ হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। বিভিন্ন বিভাগে ইতোমধ্যে নতুন বর্ষের ক্লাসও শুরু হয়েছে। এর পাশাপাশি অনেক বিভাগে পরীক্ষাও চলছে।

তিনি আরও বলেন, “করোনাভাইরাসের প্রকোপ আবারও বৃদ্ধি পেলেও অনেকের মধ্যেই এখনো যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে অনীহা লক্ষণীয়। এ অবস্থায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সমিতির পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে এইসব অনুরোধ জানিয়েছি।”

এদিকে, করোনাভাইরাসের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে একটি সভা আহ্বান করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডে।

সভায় সবগুলো বিভাগের সভাপতি, অনুষদের ডিন, ইনস্টিটিউটের পরিচালকসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে কী করা যেতে পারে সে বিষয়ে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হতে পারে বলেও জানান তিনি।

About

Popular Links