Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রাণভয়ে করেছিলেন জিডি, তবুও হয়নি শেষরক্ষা

এক নারীকে উত্যক্তের জেরে হওয়া মামলার এক নম্বর সাক্ষী ছিলেন তিনি

আপডেট : ০২ মার্চ ২০২২, ০৪:২৮ পিএম

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় গলায় রশি প্যাঁচানো অবস্থায় পীর আলী নামে স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কিছুদিন আগেই জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন তিনি।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ৭টার দিকে উপজেলার উপজেলার কাষ্টভাঙ্গা ইউনিয়নের নলভাঙ্গা গ্রাম থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। মৃত পীর আলীর বাড়ি ওই গ্রামেই। তিনি কাষ্টভাঙা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড শাখা যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। স্থানীয় একটি বাঁওড়ের নাইট গার্ড হিসেবে কাজ করতেন তিনি।

স্থানীয়দের ধারণা, একটি মামলার সাক্ষী হওয়ার কারণে অভিযুক্তদের চক্ষুশূল হন তিনি। এ কারণে তাকে হত্যা করা হতে পারে।

জানা যায়, ২০১৬ সালে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় এক নারীকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় শাহিনুর রহমান নামে এক যুবকের পা কেটে নেয় স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। বিভিন্ন গণমাধ্যমে এ ঘটনা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে আদালত স্ব-প্রণোদিত হয়ে মামলা করেন।

সেই মামলায় হাইকোর্ট ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিলে আসামিরা আত্মসমর্পণ করে। এরপর ছয় মাস ভুক্তভোগী শাহিনুরের বাড়িতে পুলিশি নিরাপত্তা ছিল। আর ওই মামলার ১ নম্বর সাক্ষী ছিলেন পীর আলী।

আসামিরা কারাগার থেকে ছাড়া পেয়ে পীর আলীকে নানাভাবে হুমকি দিতে শুরু করে। সে কারণে বেশ কয়েক সপ্তাহ আগে তিনি জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, রবিবার রাত ৮টার দিকে বাড়ি থেকে বের হন পীর আলী। এরপর আর ফিরে আসেননি। সোমবার সকালে পথচারীরা বাড়ির পাশের নলভাঙ্গা খালের ধারে মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয়।

কালীগঞ্জ বারোবাজার পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ মকলেচুর রহমান জানান, মরদেহটি একটি গাছের নিচে পড়ে ছিল। তার গলায় রশি প্যাঁচানো এবং একটি ডালের সঙ্গেও রশি জড়ানো ছিল। তবে গায়ে তেমন কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। মৃত্যুর কারণ জানতে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্ব) মতলেবুর রহমান জানান, খবর পেয়ে আমরা সেখানে গিয়েছিলাম। তবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে।

About

Popular Links