Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কোভিড: রাজশাহীতে শনাক্তের হার ৫৫.৭৮%

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এবং বাকি দুইজন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন

আপডেট : ১৩ মার্চ ২০২২, ১২:২৮ পিএম

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এবং বাকি দুইজন করোনাভাইরাস উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন বলে ঢাকা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৯টার মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী। জেলায় শনাক্তের বর্তমান হার ৫৫.৭৮%।

জানা গেছে, ১০৪ শয্যাবিশিষ্ট রামেক কোভিড ইউনিটে মঙ্গলবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ৪৩ জন রোগী ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে রাজশাহীর ২৩ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের চারজন, নওগাঁর পাঁচ জন, নাটোরের দুইজন, পাবনার তিনজন, কুষ্টিয়ার তিনজন, সিরাজগঞ্জের একজন, ঝিনাইদহের একজন ও মেহেরপুরের একজন রোগী ভর্তি রয়েছেন। এদের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৯ জন এবং কোভিড উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৩ জন।

একই সময়ে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৩ জন রোগী।

এদিকে, সোমবার রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ১৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৯৯ জনের কোভিড শনাক্ত হয়েছে। 

তবে, জেলায় প্রতিদিনই শনাক্তের হার বাড়লেও সাধারণ মানুষের মাঝে নেই সচেতনতা। রাজশাহীজুড়ে সরকারি বিধি-নিষেধ কিংবা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রবণতা একেবারেই অনুপস্থিত বলেই শনাক্তের হার প্রতিনিয়ত বাড়ছে বলে বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা।

সরেজমিনে দেখা যায়, মহানগরীর কোথাও স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই নেই। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শপিং-মল, মার্কেট, দোকানপাট, রাস্তাঘাট, গণপরিবহন সকল ক্ষেত্রেই যেন লঙ্ঘিত হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি। স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করেই জনসাধারণকে রাস্তাঘাট, খোলাবাজারসহ বিভিন্ন স্থানে চলাচল করতে দেখা গেছে।

মঙ্গলবার সকালে নগরীর সাহেব বাজার, আরডিএ মার্কেট, নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন শপিং-মল ও খোলা বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতাদের স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করেই চলাফেরা করতে দেখা গেছে। এদের মধ্যে বেশিরভাগেরই মুখে মাস্ক ছিল না। 

এছাড়া, নগরীর খাবারের দোকান, হোটেল, রেস্টুরেন্টেও নেই কোনো বিধি-নিষেধ মানার প্রবণতা। গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের বিধান থাকলেও নগরীর শিরোইল বাস টার্মিনাল, ভদ্রা বাস টার্মিনালে আসন সংখ্যার চেয়ে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে বাস চলাচল করতে দেখা গেছে।

এ বিষয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল বলেন, “জনগণ ধরেই নিয়েছে ওমিক্রনে মানুষ আক্রান্ত হলেও হাসপাতালে ভর্তি হওয়া লাগছে না কিংবা মারা যাচ্ছে না। এজন্য স্বাস্থ্যবিধি মানতে মানুষের মধ্যে বেশ অনীহা তৈরি হয়েছে। কিন্তু জনগণের এ ধারণা ভুল।”

তিনি বলেন, “স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে জনগণকে সচেতন হতে হবে। তা না হলে শুধু ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে মোবাইল কোর্ট করিয়ে কিংবা তথ্য অধিদপ্তর থেকে মাইকিং করিয়ে কোনো লাভ হবে না।”

About

Popular Links