Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শাবি ভিসি: সত্য ও ন্যায়ের বিজয় হয়েছে

ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অন্যায়ের কাছে মাথা নত করিনি, ভবিষ্যতেও করবো না’

আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ০৬:০০ পিএম

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে এই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকাল ১০টায় প্রশাসনিক ভবন-২ এর সামনে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

এরপর সকাল ১০টা ১০ মিনিটে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। সকাল ১০টা ২০ মিনিটে ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে একটি শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয় এবং শোভাযাত্রা শেষে ১০টা ৩৫ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্বরে কেক কাটে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ সময় ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, “শিক্ষার্থীরা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ। এই বিশ্ববিদ্যালয় একটি শিক্ষার্থীবান্ধব বিশ্ববিদ্যালয়। সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো সমস্যা থাকবে না। এই বছর চারটি বড় বাস কেনা হবে, টং আধুনিক করা হবে, খাবারের সমস্যা থাকবে না। হল ও ক্যাম্পাসের ইন্টারনেট সমস্যা সমাধানে ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছি। করোনাভাইরাসের সময় মোবাইল ডাটা দিয়েছি। গবেষণায় বরাদ্দ বৃদ্ধি করেছি। শিক্ষার মানোন্নয়ন করতে আরও কর্মসূচি হাতে নেওয়া হবে।”

অন্যায় আবদার করলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মাথা নত করবে না উল্লেখ করে ভিসি বলেন, “একজনও যদি ন্যায্য কথা বলে তাহলে আমরা গুরুত্ব দিয়ে এটা সমাধানের ব্যবস্থা করবো। অন্যায়ের কাছে মাথা নত করিনি, ভবিষ্যতেও করবো না। আমরা ন্যায় এবং সত্যের পথে থাকবো। আপনারা দেখতে পেয়েছেন সত্য এবং ন্যায় আজকে বিজয়ী হয়েছে, টিকে আছে। মিথ্যা আজকে পরাভূত হয়েছে। দুঃস্বপ্ন কাটিয়ে এমন একটি আলোকোজ্জ্বল দিন এসেছে, এতে সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।”

তিনি আরও বলেন, “শিক্ষার্থী ভুল করতে পারে কিন্তু শিক্ষকরা ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। তোমরা আমাদের সন্তান, অভিভাবক হিসেবে আমরা কাজ করে যাবো। শিক্ষার্থীদের ভয় পাওয়ার কিছু নাই, শিক্ষকরা অভিভাবকের জায়গা থেকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবে। সীমানা প্রাচীর করেছি। নিরাপত্তা ব্যবস্থা করেছি। এই বছরের মধ্যে ৫০০ শিক্ষার্থীর হলে আবাসিকভাবে ব্যবস্থা হবে। আগামী ২/৩ বছরের মধ্যে শতভাগ ছাত্রী হলে থাকতে পারবে। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে শতভাগ ডিজিটাল ক্যাম্পাস করা হবে।”

এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ে এক সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক আজ সোমবার থেকে খুলে দেওয়া হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল। পরদিন মঙ্গলবার থেকে চলবে অনলাইনে ক্লাস এবং আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে সশরীরে ক্লাস।

প্রসঙ্গত, ১৯৯১ সালের এই দিন থেকে ক্লাস শুরু হয় সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। প্রতি বছরই দিনটিকে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস হিসেবে উদযাপন করা হয়। শুক্রবার শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষকদের সঙ্গে মিটিংয়ের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আগের মত জৌলুশ নিয়ে উদযাপনের আহ্বান জানিয়েছেন।

About

Popular Links