Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নতুন কারিকুলামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি ২ দিন

২২ ফেব্রুয়ারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর থেকেই পরীক্ষামূলকভাবে দুই দিনের সাপ্তাহিক ছুটি শুরু হবে 

আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১১:৪৭ পিএম

নতুন শিক্ষা কারিকুলামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা দুদিনের সাপ্তাহিক ছুটি উপভোগ করতে পারবে। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির নতুন কারিকুলামে পাইলটিং (পরীক্ষামূলক) ক্লাস শুরু হবে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তা শুরু হবে মার্চে।   

বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে স্কুল-কলেজ খোলা সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ তথ্য জানান।

ডা. দীপু মনি জানান, স্কুল-কলেজ খোলায় ষষ্ঠ শ্রেণির ক্লাস নতুন কারিকুলামে নিতে আর কোনো বাধা নেই। নতুন কারিকুলাম ট্রাইআউট ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে। প্রাথমিকে মার্চ থেকে শুরু হবে। 

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ২০২২ সালে নতুন শিক্ষাক্রমের পাইলটিং করার কথা। ২০২৩ সাল থেকে পরিমার্জিত নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন শুরু হবে। ২০২৫ সালের মধ্যে মাধ্যমিক পর্যায়ের কারিকুলাম বাস্তবায়ন সম্পন্ন হবে। এছাড়া, ২০২৬ ও ২০২৭ সালে উচ্চ মাধ্যমিকের একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করা হবে।

এদিকে, প্রাথমিক স্তরের প্রথম শ্রেণির ১০০টি বিদ্যালয়ে মাধ্যমিকের সঙ্গে পাইলটিং শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সেটি না হওয়ার কথা জানিয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন, “প্রথম শ্রেণির নতুন কারিকুলামে পাইলটিং কবে থেকে শুরু করা হবে সে বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা আলোচনা করে দ্রুত সময়ের মধ্যে তা শুরু করবো। সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর তা জানিয়ে দেওয়া হবে।”

নতুন কারিকুলামে দুদিন সাপ্তাহিক ছুটির বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “প্রাথমিকে শনিবার ছুটি না রাখা হলেও এখন থেকে রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরা মনে করি, একজন শিক্ষক বা শিক্ষার্থীর সপ্তাহে দুটো দিন..., একটু যদি ব্রেক না হয়। এখন তো কম সময় ক্লাস করছিল, তারপরও একটু ব্রেক দরকার আছে। সেটাকে যদি বাদ দিয়ে দিতে পারতাম, তাহলে কয়েকটা দিন বেশি পেতাম। মাসে চারটা দিন বেশি পেতাম, সেটা ঠিক। আবার ধর্মীয় কিছু ছুটি আছে, নানা রকম বিষয় আছে।”

২২ ফেব্রুয়ারি থেকে শিক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষে ফেরার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “২২ ফেব্রুয়ারি থেকে স্কুল-কলেজে সশরীরে ক্লাস শুরু হলেও যাদের দুই ডোজ করোনাভাইরাস প্রতিরোধক টিকা নেওয়া হয়েছে তারা স্কুলে যাবে। বাকিরা বাড়িতে থেকে অনলাইন ও টিভিতে ক্লাস করবে। তবে আশার কথা হলো, মাধ্যমিক স্তরের ১২ থেকে ১৭ বছরের ১ কোটি ৮০ লাখ শিক্ষার্থীর অধিকাংশই প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছে। পাশাপাশি ৩৬ লাখের মতো শিক্ষার্থী দ্বিতীয় ডোজের আওতায় এসেছে। ২২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বাকিদের দ্বিতীয় ডোজের আওতায় আনা হবে।”

সংবাদ সম্মেলনে এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আবু বকর ছিদ্দিকী, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

About

Popular Links