Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

২৬ ফেব্রুয়ারির পরেও নেওয়া যাবে প্রথম ডোজের টিকা

আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি দেশের এক কোটি মানুষকে প্রথম ডোজের টিকা দেওয়ার লক্ষ্যে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ০৪:৫০ পিএম

করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি দেশের এক কোটি মানুষকে করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজ টিকা দেওয়ার লক্ষ্যে বিশেষ অভিযান চালাবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সরকারের টিকার দ্বিতীয় এবং বুস্টার ডোজকে প্রাধান্য দেওয়ার কারণে ওইদিনের পরেই দেশে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া বন্ধ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে এরপরও টিকার প্রথম ডোজের স্বাভাবিক কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস (বিসিপিএস) ভবনে “আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারী দেশব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য একদিনে এক কোটি ডোজ ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম” বিষয়ক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “২৬ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী টিকাদান কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। সবাইকে আহ্বান করব টিকা নেওয়ার। আমরা সবাইকে টিকা দেব। এরপর থেকে দ্বিতীয় ডোজ ও বুস্টার ডোজের কার্যক্রম নিয়ে ব্যস্ত থাকব। তবে সাময়িকভাবে প্রথম ডোজে একটু দৃষ্টিপাত কম থাকলেও কার্যক্রম চলমান থাকবে।”

তিনি আরও বলেন, “আমরা একদিনে ১ কোটি মানুষকে টিকা দিতে চাই। বিশেষ করে শ্রমজীবী মানুষকে। কারণ শ্রমজীবীদের অনেকে এখনও টিকা নেননি। প্রয়োজনে দেড় কোটি ডোজ দেব। দশ কোটি ডোজ টিকা আমাদের হাতে রয়েছে।”

জাহিদ মালেক বলেন, “আমরা এর আগেও একদিনে ৮০ লাখের বেশি টিকা দিয়েছি। আমাদের সক্ষমতা রয়েছে। বিশেষ এই কর্মসূচির বিষয়ে অনেকের সঙ্গে আলোচনা করেছি। বাস, ট্রাক, দোকান মালিক সমিতির সঙ্গে কথা বলেছি। সবার সহযোগিতা পেলে আমরা অবশ্যই সফল হব।”

১২ বছরের কম বয়সী শিশুদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, “শিশুদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এখনো অনুমোদন দেয়নি। অনুমোদন পেলে দেওয়া হবে। এখন সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মাস্ক পরতে হবে।”

About

Popular Links