Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শীতলক্ষ্যায় লঞ্চ দুর্ঘটনা: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮

সোমবার (২১ মার্চ) দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটের দিকে আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়

আপডেট : ২১ মার্চ ২০২২, ০৫:২৭ পিএম

নারায়ণগঞ্জের আল-আমিন নগরের শীতলক্ষ্যা নদীতে মালবাহী জাহাজের ধাক্কায় যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮ জনে দাঁড়িয়েছে।

সোমবার (২১ মার্চ) দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটের দিকে আরও একজনে মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন জানান, “আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার নাম পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। এ নিয়ে আট জনের মরাদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।”

নিহতরা হলেন, সোনারগাঁও হরিয়ান প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা উম্মে খাইরুন ফাতিমা (৪০), মুন্সিগঞ্জের উত্তর ইসলামপুর এলাকার জুলফিকার ভুঁইয়ার ছেলে জয়নাল ভুঁইয়া (৫০), একই এলাকার দ্বীন ইসলামের স্ত্রী আরিফা বেগম (৩৫) ও তার ছেলে সাফায়ত মাহিদ (২), জয়রাম রাজবংশীর মেয়ে শিল্পী রানী (১৯)। 

নিখোঁজের তালিকায় রয়েছেন, ঢাকা ডেমরার আব্দুল্লাহ আল যাবের আদনান (৩২), মুন্সিগঞ্জের মোসলেম উদ্দিন হাতেম (৫৫), আরোহী (৩) ও জোবায়ের হোসেন (৩৫)।


আরও পড়ুন- নারায়ণগঞ্জ-মুন্সিগঞ্জ রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ


এর আগে, ভোর সাড়ে ৫টা ৩৫ মিনিটে “প্রত্যয়” প্রায় ৭৫ ফুট অর্থাৎ ৫৫ হাত নিচ থেকে পণ্যবাহী কার্গোর ধাক্কায় ডুবে যাওয়া এমএল আশরাফউদ্দিন লঞ্চটি উদ্ধার করে। লঞ্চটিতে একজনে মরদেহ পাওয়া যায়।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জ থেকে মুন্সিগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী লঞ্চ এমএল আশরাফউদ্দিন রবিবার (২০ মার্চ) ২টা ২০ মিনিটে পণ্যবাহী কার্গো জাহাজের ধাক্কায় কয়লাঘাট এলাকায় ডুবে যায়। বিকাল ৩টা ৩৮ মিনিটের দিকে উদ্ধারকারী কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিস ও নৌ পুলিশের সদস্যরা লঞ্চটির ডুবে যাওয়া স্থান শনাক্ত করে।

এ ঘটনায় নৌ মন্ত্রণালয় ও জেলা প্রশাসনসহ ৩টি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। লঞ্চডুবির ঘটনায় নিহতদের স্বজনদের প্রাথমিকভাবে ২৫ হাজার টাকা করে অর্থ সহায়তা দেওয়া হবে।


আরও পড়ুন- মাঝনদীতে শনাক্ত লঞ্চ, ১৫ জনের মরদেহ থাকার সম্ভাবনা




About

Popular Links