Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নারায়ণগঞ্জে বাম গণতান্ত্রিক জোটের হরতালে পুলিশের লাঠিচার্জে আহত ২০

যদিও কারও ওপর কোনো হামলা, লাঠিচার্জ করা হয়নি বলে দাবি পুলিশের

আপডেট : ২৮ মার্চ ২০২২, ০৪:০১ পিএম

ভোজ্যতেল, চাল, ডালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম কমানোর দাবিতে নারায়ণগঞ্জে বাম গণতান্ত্রিক জোটের হরতালে পুলিশের বিরুদ্ধে দফায় দফায় লাঠিচার্জের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নেতা-কর্মীসহ প্রায় ২০ জন আহত হয়েছে।

সোমবার (২৮ মার্চ) সকাল ৭টার দিকে শহরের চাষাঢ়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম কমানোর দাবিতে সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সারা দেশে হরতাল ডাকে বাম গণতান্ত্রিক জোট। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সকাল পৌনে ৬টা থেকে জোটের নেতা-কর্মীরা নারায়ণগঞ্জ শহরের দুই নম্বর রেলগেইট এলাকা থেকে মিছিল বের করে। ৭টার দিকে মিছিল চলাকালীন চাষাঢ়ার মেডিনোভা হাসপাতাল ও গলাচিপার মোড়ে দুটি হাত বোমা বিস্ফোরিত হয়।

বাম গণতান্ত্রিক নেতাকর্মীদের অভিযোগ, সকাল ৭টার দিকে শহরের ২ নম্বর গেট এলাকা থেকে একটি মিছিল নিয়ে শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক প্রদক্ষিণ করে চাষাঢ়া বিজয়স্তম্ভের সামনে গেলে পুলিশ নেতাকর্মীদের মিছিল ছত্রভঙ্গ করে দেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় তারা মিছিল নিয়ে এগিয়ে যেতে চাইলে পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ শুরু করে। এতে কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়। এরপর মিছিলটি নিয়ে ২ নম্বর রেলগেইট এলাকায় পৌঁছালে পুলিশ তাদের ওপর আবারও লাঠিচার্জ শুরু করে।

দফায় দফায় পুলিশের হামলায় সিপিবি শহর কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুজয় রায় চৌধুরী বিকু, বাংলাদেশ  সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক সুলতানা আক্তার, রাশিদা আক্তার, মুন্নী সরদার, আসমাসহ গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলার সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেনসহ প্রায় ১৫-২০ জন আহত হন।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান রিচার্ড জানান, নারায়ণগঞ্জে হরতাল মিছিলে দফায় দফায় পুলিশের হামলায় গণসংহতি আন্দোলন ও বাম জোটের প্রায় ২০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের জেলা সমন্বয়ক ও বাসদের সমন্বয়ক নিখিল দাস জানান, বেলা ১২টার দিকে আজকের মতো হরতাল কার্যক্রম শেষ হয়েছে। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী কার্যক্রম নির্ধারিত হবে। 

তিনি বলেন, দিনের পর দিন উন্নয়নের নামে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়িয়ে চলেছে। এখন যখন আমরা বাম গণতান্ত্রিক জোট গণ মানুষের অধিকার আদায়ে আন্দোলন করছি তখন পুলিশ বাহিনী আমাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। সকাল থেকেই হরতালে বিভিন্ন ভাবে বাধা দিচ্ছিল। সাড়ে ৭টার দিকে সদর থানার ওসি শাহ জামানের নেতৃত্বে ২৫ জন পুলিশ একটি টিম আমাদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা বাঁশ, কাঠ দিয়ে আমাদের  ওপর হামলা চালায়। নারী কর্মীদেরও মারধর করে। পুলিশের এ হামলার প্রতিবাদে আগামীকাল ৪টায়  চাষাঢ়া শহীদ মিনারে একটি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। 

আহত বাংলাদেশ  সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক সুলতানা আক্তার বলেন, সকালে একটি মিছিল নিয়ে চাষাঢ়া জিয়া হলের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় পেছন থেকে আমাদের দলের একজন কর্মীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করে পুলিশ। এ সময় আমিসহ কয়েকজন তাকে ছাড়াতে গেলে এক পুলিশ আমার ও আরেকজনের চুলের মুঠিতে ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। এখন আমার প্রশ্ন তারা যদি আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষণাবেক্ষণে মাঠে থাকে, তাহলে এ হামলা কেন? 

এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ জামান জানান, হরতালের নামে তারা শহরে ককটেল বিস্ফোরণ করে অরাজকতার সৃষ্টি চেষ্টা করছিল। সাধারণ মানুষের চলাচলে বিঘ্ন ঘটানোর চেষ্টা করছিল। তাই যাতে কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি  না হয়, আমরা শুধু সেই চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু কারও ওপর কোনো হামলা, লাঠিচার্জ করা হয়নি। পরে তারা শান্তিপূর্ণভাবে হরতাল করার বিষয়টি নিশ্চিত করলে আমরা তাদের বাধা দেইনি। 

এছাড়া, নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন স্থানে যানজট দেখা দিলেও দুপুর ১২ টার পর থেকে যানচলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলেও জানান তিনি।

About

Popular Links