Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শিক্ষার্থীকে হাত বেঁধে পেটানোর অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে

এর আগেও সহকারী প্রধান শিক্ষক ও তার স্ত্রীকে পিটিয়ে আলোচনায় আসেন ওই প্রধান শিক্ষক

আপডেট : ২৯ মার্চ ২০২২, ০৯:৪৪ পিএম

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ১০ম শ্রেণির এক ছাত্রকে হাত বেঁধে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলকাছ উদ্দিনের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় শিক্ষক ও ছাত্রের পক্ষ থেকে থানায় পাল্টাপাল্টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) দুপুরে উপজেলার গোলামনবী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগেও সহকারী প্রধান শিক্ষক ও তার স্ত্রীকে পিটিয়ে আলোচনায় আসেন ওই প্রধান শিক্ষক। ওই সময় ঘটনাটি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

শিক্ষার্থীর বাবা আরহাম আলী জানান, গত কয়েকদিন যাবত স্কুলে সিনিয়র-জুনিয়রকে কেন্দ্র করে আলামিনের কয়েকজন সহপাঠীর সঙ্গে তার বিরোধ চলে আসছে। সোমবার বিকেলে স্কুল ছুটির পর তাদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার সকালে আলামিন স্কুলে গেলে তার সহপাঠীদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আবারও কথা কাটাকাটি হয়। প্রধান শিক্ষক আলকাছ উদ্দিন তাদের মধ্যে এসব ঘটনার বিষয়ে জানতে পেরে দুপুরে আলামিনকে তার অফিসে কক্ষে ডেকে নিয়ে দুহাত পেছনে বেঁধে ফেলে। পরে পাইপ দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে পিটিয়ে জখম করে। 

খবর পেয়ে আলামিনের পরিবারের লোকজন স্কুলে প্রধান শিক্ষকের অফিসে গিয়ে তার হাতের বাঁধন খুলে তাকে উদ্ধার করে। তারা আলামিনকে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা করায়। এ ঘটনায় আহত ছাত্রের বাবা আরহাম আলী বাদী হয়ে প্রধান শিক্ষককে অভিযুক্ত করে কালিয়াকৈর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তিনি বলেন, “আমার ছেলের সহপাঠীরা আলামিনকে মারধর করলে আমি প্রধান শিক্ষকের কাছে বিচার দিই। কিন্তু, তিনি উল্টো আমার ছেলেকে দুহাত পেছনে বেঁধে গরুর মতো পেটালেন। কয়েক মাস আগে ওই প্রধান শিক্ষক তার বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক কামরুল হাসানকে প্রকাশ্যে মারধর ও তার স্ত্রীকে লাঞ্ছিত করেন। ওই ঘটনায় থানায় ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) কাছে অভিযোগ দিলে বিষয়টি মিমাংসা করা হয়। গত কয়েকদিন যাবত প্রধান শিক্ষক আলকাছ উদ্দিন ওই সহকারী প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে নিষেধ করেছেন। এসব ঘটনায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় লোকজন ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।“

এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আলকাছ উদ্দিন কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি। তবে তিনিও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন বলেও জানান।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান বলেন, “উভয়ের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে।”     

কালিয়াকৈরের ইউএনও তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাত বলেন, “ছাত্রকে পেটানোর ঘটনাটি ন্যাক্কারজনক। এ ঘটনায় শিক্ষক ও ছাত্রের পক্ষ থেকে মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

About

Popular Links