Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সাভারে ১০ মাদ্রাসাছাত্রীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ

অধ্যক্ষর মেয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেওয়ায় ১০ শিশু শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করেছেন মাদ্রাসার এক শিক্ষিকা ও অধ্যক্ষের স্ত্রী

আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২২, ০১:০০ পিএম

সাভারে একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষের মেয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেওয়ায় একই ক্লাসের ১০ শিশু শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করেছেন মাদ্রাসার এক শিক্ষিকা ও অধ্যক্ষে স্ত্রী।

খবর পেয়ে আহত শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করতে গেলে তাদের পরিবারের সদস্যদেরও মাদ্রাসায় আটকে রাখা হয়। পরে, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিভাবকসহ ওই শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করেছে।

শুক্রবার (১৫ এপ্রিল) রাতে সাভার পৌর এলাকার মজিদপুর মহল্লায় ত’লীমুন নিসা নামের একটি মহিলা মাদ্রসায় এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা জানান, শুক্রবার বিকেলে অধ্যক্ষ মোতালেবের মেয়ে মাদ্রাসা ভবনের ছাদে গিয়ে পাশের মাদ্রাসার একটি ছেলের সঙ্গে কথা বলছিল। পরে, বিষয়টি অধ্যক্ষের স্ত্রী সালমাকে জানায় কয়েকজন শিক্ষার্থী। এ ঘটনার পর আমেনা নামে মাদ্রাসার এক শিক্ষিকা ওই ১০ জন ছাত্রীকে মাদ্রাসার তৃতীয় তলার একটি কক্ষে নিয়ে যান এবং বেত দিয়ে তাদের পেটাতে থাকেন। কিছুক্ষণ পর অধ্যক্ষর স্ত্রী আহত শিক্ষার্থীদের পঞ্চম তলার আরেকটি কক্ষে নিয়ে গিয়ে আবারও পেটাতে থাকেন।

এ সময় রিমি নামের এক শিক্ষার্থী অচেতন হয়ে পড়েন এবং গুরুতর আহত হন বাকি ৯ শিক্ষার্থী।

সন্ধ্যার পর বিষয়টি জানাজানি হলে ওই শিক্ষার্থীদের পরিবারের সদস্যরা মাদ্রাসায় এলে অধ্যক্ষর সঙ্গে তাদের বাগ্বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে তাদেরকে মাদ্রাসার ভেতর আটকে রেখেই প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়।

পরবর্তীতে ওই অভিভাবকরা ৯৯৯ ফোন করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদেরসহ সবাইকে উদ্ধার করে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

এ বিষয়ে মনিরুজ্জামান নামের এক অভিভাবক বলেন, “মাদ্রাসার অধ্যক্ষের মেয়ের কথা বলে দেওয়া অধ্যক্ষের স্ত্রী এই শিশু শিক্ষার্থীদের অন্যায়ভাবে পিটিয়ে আহত করেছেন।”

তিনি অধ্যক্ষ ও তার স্ত্রীর কঠোর বিচারের দাবি করেন।


আরও পড়ুন



এ ব্যাপারে মাদ্রসার অধ্যক্ষ মোতালেব হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

সাভার মডেল থানার উপ পরিদর্শক এস আই পাভেল মোল্লা বলেন, “খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ওই শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে অভিভাকদের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।”

এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

About

Popular Links