Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিয়ের চাপ দেওয়ায় হোটেলে নিয়ে প্রেমিকাকে হত্যা

তিন মাস ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল বলে জানা গেছে

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২২, ০৬:২০ পিএম

রাজশাহীতে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ায় হোটেলে নিয়ে জয়নব বেগম (৪০) নামে এক নারীকে হত্যা করেছেন তার প্রেমিক মিঠুন আলী (২৮)।

নিহত জয়নব নাটোর সদর থানার আটঘরিয়া গ্রামের তছির প্রামানিকের মেয়ে।

সোমবার (১৮ এপ্রিল) রাতে নাটোরে নিজের বাড়ি থেকে মিঠুনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার বাড়ি নাটোর সদর থানার আগদিঘা গ্রামে। তিনি স্থানীয় একটি ইটভাটার কর্মচারী। তার স্ত্রী ও এক ছেলে রয়েছে।

গত রবিবার রাতে রাজশাহী মহানগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকায় ‘‘ড্রিম হ্যাভেন’’  আবাসিক হোটেল থেকে এই নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে মহানগর পুলিশের সদর দপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন ও ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন রাজশাহী পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক। 

তিনি বলেন, “জয়নব ও মিঠুন একই ইটভাটায় কাজ করতেন। তিন মাস ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। তাদের একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কও হয়েছে। গত দুই সপ্তাহ ধরে জয়নব বিয়ের জন্য চাপ দিয়ে শারীরিক সম্পর্কের কথা ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছিল আসামি মিঠুনকে। পরে, মিঠুন বিয়ের কথা বলে গত ১৭ এপ্রিল ২০২২ জয়নবকে স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে ও মিথ্যা নাম ঠিকানা ব্যবহার করে ড্রিম হ্যাভেন নামে রাজশাহীর একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে যায়। সেখানেই পরিকল্পিতভাবে বালিশ চাপা দিয়ে জয়নবকে হত্যা করার আগেও তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক হয়েছিল।”

পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, “মিঠুনকে গ্রেপ্তারের সময় তার ঘরে তল্লাশি চালিয়ে ঘটনার দিন ব্যবহৃত পোশাক ও নিহত জয়নবের মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। পরে, নিহতের বড় ভাই তছলেম প্রামানিকের দায়ের করা হত্যা মামলায় মিঠুনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।”

উল্লেখ্য, গত ১৭ এপ্রিল রাত ১২টার দিকে ড্রিম হ্যাভেন নামের একটি হোটেলের একটি কক্ষ থেকে অজ্ঞাত এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে, লাশের আঙুলের ছাপ থেকে তার নাম ও পরিচয় বের করে পুলিশ।

About

Popular Links