Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

খেজুর আমদানির নামে এলো কোটি টাকার সিগারেট

এই সিগারেটের শুল্ককর ৭ কোটি ১১ লাখ টাকা। শুল্ককর ফাঁকি দিতেই আমদানিকারক এই কৌশলের আশ্রয় নিয়েছেন

আপডেট : ২৫ এপ্রিল ২০২২, ০৭:২১ পিএম

খেজুর আমদানির ঘোষণায় চট্টগ্রাম বন্দরে আসা একটি কনটেইনার থেকে ৫৫ লাখ ৫২ হাজার শলাকা বিদেশি সিগারেট জব্দ করেছে কাস্টম হাউস। যার আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ১৯ লাখ টাকা।

এই সিগারেটের শুল্ককর ৭ কোটি ১১ লাখ টাকা। শুল্ককর ফাঁকি দিতেই আমদানিকারক এই কৌশলের আশ্রয় নিয়েছেন বলে কাস্টমস কর্মকর্তারা জানান।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) এই তথ্য জানিয়েছে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

কাস্টমসের নথি অনুযায়ী, চট্টগ্রামের কোতোয়ালী থানাধীন জুবিলি রোডের তিন পোলের মাথার সূচনা ইন্টারন্যাশনালের নামে চালানটি এসেছিল। চালানটির এলসি ইস্যু করা হয় গ্লোবাল ইসলামি ব্যাংক লিমিটেডের খাতুনগঞ্জ শাখায়। সংযুক্ত আরব আমিরাতের জেবেল আলি বন্দর থেকে গত ২৭ ডিসেম্বর চালানটি জাহাজীকরণ হয়, ৩০ ডিসেম্বর জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দরে পৌঁছায়।  

আমদানি হওয়া এ খেজুর দীর্ঘদিনেও খালাস নেয়নি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। পরে চালানটি নজরে আসে কাস্টম হাউসের পোর্ট কন্ট্রোল ইউনিটের। সন্দেহ হওয়ায় কাস্টমস কর্মকর্তারা চালানটি পরীক্ষা করে দেখতে পান খেজুরের আড়ালে বিদেশি সিগারেট এনেছে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। 

রবিবার কনটেইনার খুলে ১ হাজার ৯৮৩টি কার্টনে খেজুরের নিচে সিগারেটের প্যাকেট পাওয়া যায়। ৭৮৯টি কার্টনে সব মিলিয়ে ১১ হাজার ৮৫৬ কেজি খেজুর পাওয়া গেছে চালানটিতে। আর সিগারেট পাওয়া গেছে সাড়ে ৫৫ লাখ শলাকার।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম কাস্টমসের উপকমিশনার মো. সালাহউদ্দিন রিজভী বলেন, “পোর্ট কন্ট্রোল ইউনিটের ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার আওতায় চালানটি শনাক্ত করে কায়িক পরীক্ষা করা হয়। এরপরই সিগারেট জব্দ করা হয়। এখন আমদানিকারকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

তিনি আরও বলেন, “আমদানিনীতি অনুযায়ী, সিগারেট শর্ত সাপেক্ষে আমদানিযোগ্য। সিগারেটের গায়ে বাংলায় ‘ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর’ লেখা থাকতে হয়। কিন্তু আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অসত্য ঘোষণায় সিগারেট আমদানি করেছেন।”

About

Popular Links