Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

২ কোটি লিটার ভোজ্যতেল নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে সিঙ্গাপুরের জাহাজ

সারা দেশের খুচরা বাজারে হঠাৎ ভোজ্য তেলের সংকট দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে বিপুল পরিমাণ অপরিশোধিত সয়াবিন তেল নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে ভিড়েছে ‘এমভি ওরিয়েন্ট চ্যালেঞ্জ’ নামের একটি জাহাজ

আপডেট : ০২ মে ২০২২, ০৮:৪০ পিএম

সারা দেশের খুচরা বাজারে হঠাৎ ভোজ্য তেলের সংকট দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে বিপুল পরিমাণ অপরিশোধিত সয়াবিন তেল নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে ভিড়েছে “এমভি ওরিয়েন্ট চ্যালেঞ্জ” নামের একটি জাহাজ। সোমবার (২ মে) বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কমের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, ২ কোটি ২৯ লাখ লিটার অপরিশোধিত সয়াবিন নিয়ে সিঙ্গাপুরের পতাকাবাহী “এমভি ওরিয়েন্ট চ্যালেঞ্জ” জাহাজটি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে এসে ভেড়ে। জাহাজে দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আমদানি করা তেল রয়েছে।


আরও পড়ুন- ঈদের আগে বাজার থেকে উধাও সয়াবিন তেল!


জাহাজটিতে সিটি গ্রুপ, সেনা কল্যাণ এডিবল অয়েল, বাংলাদেশ এডিবল অয়েল ও বসুন্ধরা গ্রুপসহ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আমদানি করা তেল রয়েছে। সয়াবিন তেল নিয়ে জাহাজ আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম বন্দর সচিব মো. ওমর ফারুক। তিনি বলেন, “খালাসের প্রক্রিয়াও প্রায় শেষ পর্যায়ে।”

বিদেশ থেকে আনা এই সয়াবিন তেল প্রথমে পতেঙ্গা ট্যাংক টার্মিনালে রাখা হয়। এরপর সেখান থেকে সংশ্লিষ্ট কোম্পানি তাদের কারখানায় নিয়ে গিয়ে সেখানে পরিশোধন করে বাজারজাত করে থাকে।

রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের পর সারাবিশ্বের মতো সয়াবিনের বাজারে অস্থিরতা শুরু হলে দেশের তেলের বাজারে এর ব্যাপক প্রভাব পড়ে। সরকার বিভিন্ন পর্যায়ে তেলের ওপর বিভিন্ন শুল্ক প্রত্যাহার করে এবং দাম নির্ধারণ করে দেয়। অস্থিরতার মধ্যেই খোলা বাজারে বোতলজাত সয়াবিন তেলের সংকট দেখা দেয়।


আরও পড়ুন-  ঈদের আগে ঊর্ধ্বমুখী ভোজ্যতেলের বাজার


বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিভিন্ন ব্যবসায়িক গ্রুপ সরবরাহ কমিয়ে দেওয়ায় খোলা বাজারের দোকানিরা সয়াবিন তেল নিতে পারছেন না। আবার দোকানিরাও তাদের সংগ্রহে যা আছে, তা ইচ্ছেমতো দামে বিক্রি করছেন।

সয়াবিন তেল আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের এক শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা বিডিনিউজকে বলেন, “বিশ্ববাজারে দাম বাড়তি, তাই আমদানি করা সয়াবিন তেলের দামও বেশি দরে বাজারে বিক্রি করতে হবে। ঈদের পরে সরকার নতুন দাম ঠিক করে দিলে সে অনুযায়ী দাম ঠিক করা হবে।”


আরও পড়ুন- গুদামে থাকলেও বাজারে নেই সয়াবিন তেল


সিটি গ্রুপের পরিচালক বিশ্বজিৎ সাহা বলেন, “বাজারে সয়াবিনের সাপ্লাই চেইন ঠিক আছে। আমদানিও হচ্ছে, তবে তা বেশি দামে। দাম নিয়ে সরকারের বাইরে যাবার সুযোগ আমাদের নেই। ঈদের পরে সরকার যেভাবে বলবে আমরা সেভাবে দাম ঠিক করবো।”

এদিকে ইন্দোনেশিয়া তাদের দেশ থেকে পাম তেল রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দেওয়ার পর বাংলাদেশেও পাম তেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

About

Popular Links