Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সাবেক স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ গৃহবধূর মৃত্যু

ওই গৃহবধূর সাবেক এবং বর্তমান স্বামীও দগ্ধ হয়ে চিকিৎসাধীন

আপডেট : ১০ মে ২০২২, ১১:০৪ এএম

সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটায় সাবেক স্বামীর দেওয়া পেট্রলের আগুনে দগ্ধ হয়ে তামান্না খাতুন নামে এক গৃহবধূ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

সোমবার (৯ মে) দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে মারা যান তিনি।

পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাঞ্চন কুমার রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, “পেট্রলের আগুনে দগ্ধ মেয়েটি ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বর্তমানে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই কৃষ্ণ সেখানে অবস্থান করছেন। ইতোমধ্যে প্রধান আসামি সাবেক স্বামী সাদ্দাম হোসেনকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আটক করা হয়েছে। তিনিও বার্ন ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তরুণীর বর্তমান স্বামী ফরহাদ হোসেনও দগ্ধ অবস্থায় একই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।”

আগুন দেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, “মূলত সাবেক স্বামী মালয়েশিয়া প্রবাসী সাদ্দাম হোসেন নিজের গায়েও পেট্রল দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে একসঙ্গে মরবেন বলে তরুণীকে জড়িয়ে ধরেন। তখন তিন জনই কমবেশি দগ্ধ হন। এ মামলায় অপর এক আসামি পাটকেলঘাটার বড় কাশিপুর গ্রামের শেখ আব্দুল আলালের ছেলে শেখ তুহিন হোসেনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।”

জানা গেছে, তামান্না খাতুন পাটকেলঘাটা থানার বড় কাশিপুর গ্রামের শেখ আব্দুল হকের মেয়ে। গত ৫ মে সন্ধ্যায় বাড়ির পেছনে কপোতাক্ষ নদীর পাড়ে বসে থাকা অবস্থায় স্বামীসহ ওই তরুণীকে পেট্রল দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেয় সাবেক স্বামী সাদ্দাম হোসেন। এরপর থেকে বার্ন ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন ছিলেন ওই গৃহবধূ।

এ ঘটনায় তরুণীর বাবা আব্দুল হক পাটকেলঘাটা থানায় সাদ্দাম হোসেনসহ ছয় জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত তিন জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। প্রধান অভিযুক্ত সাদ্দাম কলারোয়া উপজেলার তুলসিডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা।

About

Popular Links