Sunday, June 16, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নওগাঁয় ইউএনও’র গাড়ির ধাক্কায় তিন মোটরসাইকেল আরোহী আহত

আহত তিনজনই বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন, তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর

আপডেট : ১৪ মে ২০২২, ০৪:৪৭ পিএম

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ইফতেখারুল ইসলামের গাড়ির ধাক্কায় তিন মোটরসাইকেল আরোহী আহত হয়েছেন। আহত তিনজনই বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

শুক্রবার (১৩ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলার রাণীনগর উপজেলার ঘোষগ্রাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত মোটরসাইকেল আরোহীরা হলেন- শরিফুল মণ্ডল, হাসান আলী ও নাইম হোসেন। তারা সবাই নওগাঁ সদর উপজেলার দুবলহাটি ইউনিয়নের বনগ্রামের বাসিন্দা। আহতদের মধ্যে শরিফুল মণ্ডলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য দুজন নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আহতদের স্বজনরা জানান, শরিফুলসহ ওই তিনজন ব্যক্তিগত কাজের উদ্দেশ্যে মোটরসাইকেলযোগে রাণীনগর হয়ে আত্রাই উপজেলার দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় রাণীনগর উপজেলার ঘোষগ্রাম এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা আত্রাই উপজেলার ইউএনও ইফতেখারুল ইসলামের গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে পাকা সড়কে পড়ে গিয়ে তিনজনই আহত হন।

প্রথমে তাদেরকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিলে গুরুতর আহত শরিফুলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেলে পাঠান চিকিৎসকরা। তার ডান পা, ডান হাত ও মুখে মারাত্মক জখম হয়েছে।

তবে আত্রাই উপজেলার ইউএনও ইফতেখারুল ইসলাম ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “আমরা গাড়ি নিয়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার জন্য ঘোষগ্রাম দিয়ে বান্দাইখাড়ার উদ্দেশে যাচ্ছিলাম। ওই সময় বৃষ্টি হচ্ছিলো এবং আমাদের গাড়ি খুব ধীরে যাচ্ছিল। আমরা ঘোষগ্রাম এলাকায় পৌঁছানোর পর বিপরীত দিক থেকে আসা তিন যাত্রীবাহী একটি মোটরসাইকেল রাস্তায় পিছলে গিয়ে আমাদের গাড়িতে এসে ধাক্কা মারে এবং তারা পড়ে যান। এতে মোটরসাইকেলে থাকা একজন আরোহী আহত হন এবং অন্য দুজনের কিছুই হয়নি।”

তিনি আরও বলেন, “আহত ওই আরোহীকে সঙ্গে সঙ্গে নওগাঁ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিকেলে পাঠানো হয়। আহত ব্যক্তির চিকিৎসার জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা সহায়তাও করা হয়েছে।”

রাণীনগরের ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতো ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “এ বিষয়ে আমি কোনো কিছুই জানতাম না। আত্রাইয়ের ইউএনও আমাকে ফোন দিলে আমি হাসপাতালে যাই। আহতদের চিকিৎসার জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক স্যার আর্থিক সহযোগিতাও করেছেন।”

রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিন আকন্দ জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কেউ আসেনি বা অভিযোগ করেনি।

About

Popular Links