Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সীতাকুণ্ডে সন্তানকে বিক্রি করে মায়ের ছিনতাইয়ের নাটক!

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, জেনির আগের বাচ্চার বয়স ১৬ মাস। এরই মধ্যে জন্ম নেয় দ্বিতীয় বাচ্চা। অভাবের সংসার তার উপর তার বয়স ২০ বছর

আপডেট : ২০ মে ২০২২, ১১:৫৭ এএম

সীতাকুণ্ডে নিজের সন্তানকে বিক্রি করে মায়ের ছিনতাইয়ের নাটক সাজানোর ঘটনার তিন দিনের মাথায় ১৪ দিন বয়সী শিশুটিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। শিশুর মা জেনি আক্তারের তথ্যমতে নগরীর আকবর শাহ থানা পুলিশের সহায়তায় বাচ্চাটিকে উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) নগরীর সিটি গেইট এলাকার একটি বাসা থেকে পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, জেনি আক্তার তার ১৪ দিন বয়সী বাচ্চাটিকে নগরীর আকবরশাহ থানার সিটি গেইট এলাকায় এক ব্যক্তির কাছে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেন। তার আগের বাচ্চার বয়স ১৬ মাস। এরই মধ্যে জন্ম নিল দ্বিতীয় বাচ্চা। অভাবের সংসার তার উপর তার বয়স ২০ বছর। এসব কারণে প্রতিবেশীরা নানা কথা শোনাতে থাকে। তা নিয়ে মানসিকভাবে চিন্তিত ছিল জেনি।

সাজানো ঘটনায় জেনি দাবি করেছিলেন, গত ১৬ মে রবিবার ১৪ দিন বয়সের শিশু ছেলেকে ডাক্তার দেখাতে গিয়ে গাড়ির জন্যে রাস্তায় অপেক্ষা করছিলেন তিনি। এসময় একটি সিএনজি অটোরিকশা এসে দাঁড়ায় তার সামনে। গাড়িটিতে উঠে দেখেন সেখানে এক নারী। সীতাকুণ্ডের জোড়আমতল থেকে ভাটিয়ারী যাওয়ার পথে ঔই নারী জেনি আক্তারের মাথায় হাত বুলিয়ে দিয়ে বলেন, “আপনার বাচ্চাটাতো সুন্দর।” একথা শুনার পর আর কিছু মনে নেই জেনি আক্তারের।

এ অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ শিশুর সন্ধানে তদন্ত শুরু করলে পুলিশ জানতে পারে মা জেনি নিজেই ১৪ দিনের বাচ্চাকে অন্যের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন।

উদ্ধার হওয়া শিশুর বাবা মো. ইয়াসিন জানান, তার বাড়ি খুলনার বাগেরহাটে। পেশায় সে অটোরিকশা চালক। বাচ্চা জন্মের সময় হওয়াতে স্ত্রীকে কিছুদিন আগে সীতাকুণ্ডে বাবার বাড়িতে পাঠান। কিন্তু কি কারণে তার স্ত্রী এই ঘটনা ঘটিয়েছে তিনি তা জানেন না।

সীতাকুণ্ড থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নোমান বলেন, “ঘটনার তদন্ত চলছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।”

About

Popular Links