Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘কিলিং মিশন’ নিয়ে ক্যাম্পাসে এসেছিল ছাত্রদল, দাবি ছাত্রলীগের

সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রলীগ ছাত্রদলের হামলা চালায়নি বলেও দাবি করেছেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক

আপডেট : ২৬ মে ২০২২, ০১:৪০ পিএম

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় ছাত্রদলের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনার পর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেছেন, ছাত্রদল কিলিং মিশন নিয়ে ক্যাম্পাসে এসেছিল। ক্যাম্পাসে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করে, ছাত্রদের লাশের ওপর দাঁড়িয়ে তারা রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে এখানে এসেছে।

মঙ্গলবার (২৪ মে) ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

সাদ্দাম হোসেন বলেন, “ছাত্রলীগ হামলা করেনি বরং ছাত্রদল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করেছে। ছাত্রদল অছাত্র ও সন্ত্রাসীদের নিয়ে ক্যাম্পাসে ঢোকার চেষ্টা করলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা তা শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিহত করে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের সমর্থনে ছাত্রলীগও ক্যাম্পাসে অবস্থান নেয়।”

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “ছাত্রলীগ চায় ছাত্রদের নির্বিঘ্ন শিক্ষাজীবন। তারা নির্বিঘ্নে ক্লাস করবে, পরীক্ষা দেবে, হলে থাকবে। শিক্ষাঙ্গন কোনোভাবেই যেন সন্ত্রাসের আশ্রয়স্থল না হয় সেটাই আমাদের প্রত্যাশা। কিন্তু ছাত্রদল সাংগঠনিকভাবে সন্ত্রাসকে প্রশ্রয় দিচ্ছে, লাশ ফেলার পাঁয়তারা করছে। এজন্য স্বাভাবিকভাবেই শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভ রয়েছে, তারা রুখে দাঁড়াতে চায়। আজ যখন ছাত্রদলের ক্যাডাররা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বহিরাগতদের সাথে নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশের চেষ্টা করে তখন সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাদের প্রতিরোধ করে। ছাত্রলীগ তখন সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে সংহতি জানায়।”


আরও পড়ুন- শহীদ মিনার এলাকায় ছাত্রদল-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ


এদিকে, ছাত্রদলের দাবি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তির অভিযোগের ব্যাখ্যা দিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে টিএসসি যাওয়ার পথে ছাত্রলীগ তাদের ওপর হামলা চালায়। 

এ অভিযোগের জবাবে সাদ্দাম হোসেন বলেন, “কোনোভাবেই ছাত্রলীগ তাদের ওপর হামলা চালায়নি। সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাদের প্রতিরোধ করেছে। ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের সমর্থন দিয়েছে। ক্যাম্পাসে মিছিল করেছে, স্লোগান দিয়েছে। আর সেটা করতে গিয়ে আমাদের কয়েকজন নেতাকর্মীও আহত হয়েছেন।”

তিনি আরও বলেন, “ছাত্রদলকে আমরা আহ্বান জানাই, তারা সন্ত্রাসের ভাষা পরিত্যাগ করুক, রাজাকারদের পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়া বন্ধ করুক। লন্ডনের ফতোয়া যদি তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাস্তবায়ন করতে চায়, কিলিং মিশন বাস্তবায়ন করতে চায়, সেক্ষেত্রে আমরা অতীতের ধারাবাহিকতায় তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তুলব।”

এর আগে, মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি রাশেদ ইকবাল খান, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আফসান মোহাম্মদ ইয়াহিয়াসহ অন্তত ৩০ জন নেতাকর্মী আহত হন। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

About

Popular Links