Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কর্মস্থল থেকে ফেরার সময় ফ্রান্সের রাস্তায় পিটুনিতে বাংলাদেশির মৃত্যু

এক দশকের বেশি সময় ধরে প্যারিসে বসবাস করা ওই বাংলাদেশি একটি রেস্টুরেন্টে কাজ করতেন

আপডেট : ২৬ মে ২০২২, ০৯:৩৩ পিএম

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে একদল অজ্ঞাতনামা হামলাকারীর হাতে পিটুনির শিকার হয়ে সোহেল রানা নামে এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২১ মে) স্থানীয় সময় ভোরে প্যারিসের বাস্তিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে করা এক প্রতিবেদনে বৃহস্পতিবার এ কথা জানায় অনলাইন সংবাদমাধ্যম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

নিহত সোহেল রানার বাড়ি মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার লতব্দী ইউনিয়নের খিদিরপুর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মো. আজিজুল হক সরকারের ছেলে।

সোহেল রানা এক দশকের বেশি সময় ধরে প্যারিসে বসবাস করছেন। তিনি প্যারিসের বাস্তিলের একটি রেস্টুরেন্টে কাজ করতেন। তার স্ত্রী ও তিন বছরের একটি ছেলে রয়েছে।

সোহেলের বাবা আজিজুল হক সরকার জানান, শনিবার রেস্তোরাঁয় রাতের শিফটের কাজ সেরে সোহেল স্থানীয় সময় ভোর ৫টার দিকে বাসায় ফিরছিলেন। রোস্তোরাঁর কাছেই একটি গলিতে চারজন সন্ত্রাসী সোহেলকে মারধর করে পালিয়ে যায়। তার মাথার জখম গুরুতর ছিল।

এ ঘটনায় রেস্তোরাঁর মালিক বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন বলেও জানান তিনি।

সোহেল রানার খালাতো ভাই সংগীতশিল্পী মিজান রাহমান বলেন, “ও একজন সহজ সরল মানুষ ছিল। কারো সঙ্গে বিরোধ থাকার কথা না। ছিনতাইয়ের জন্য ওই হামলা হয়েছে বলে আমাদের ধারণা।”

বাংলাদেশ দূতাবাসও এ বিষয়ে উদ্যোগী হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “ময়নাতদন্তের পর মরদেহ দেশে পাঠানোর দিনক্ষণ ঠিক করা হবে।”

এদিকে, প্যারিস প্রবাসী শাহ সুহেল আহমদ জানান, সোহেলের মৃত্যুতে সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশিরাও প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন। তারা বলছেন, প্যারিসে চুরি-ছিনতাই বেড়েই চলেছে। অনেক বাংলাদেশিও এ ধরনের ছিনতাইর ঘটনার শিকার হয়েছেন। সোহেলও হয়ত ছিনতাইকারীর খপ্পড়ে পড়েছিলেন।

প্যারিসে বাংলাদেশ দূতাবাসের সেকেন্ড সেক্রেটারি মো. ওয়ালিদ বিন কাশেম এ বিষয়ে বলেন, “সোহেল রানার হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও শাস্তির জন্য বাংলাদেশ দূতাবাস গুরুত্ব সহকারে কাজ করছে। আগামীকাল ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অফিসিয়ালি অবহিত করা হবে।”

About

Popular Links