Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

২৫ জুন পদ্মা পাড়ে মহাসমাবেশে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

২০১৮ সালের পর এটি হবে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে প্রধানমন্ত্রীর প্রথম জনসমাবেশ

আপডেট : ৩০ মে ২০২২, ০৫:৫৮ পিএম

আগামী ২৫ জুন খুলে দেওয়া হবে বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা সেতু। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদিন সকাল দশটায় এ সেতুর উদ্বোধন করবেন। সেতু উদ্বোধনের পর পদ্মার জাজিরা প্রান্তে জনসমাবেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০১৮ সালের পর এটি হবে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে প্রধানমন্ত্রীর প্রথম জনসমাবেশ।

সোমবার (৩০ মে) জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন ঢাকা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৫ জুন সকাল ১১টায় মাদারীপুরের শিবচরের ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী ঘাটে জনসভায় বক্তব্য রাখবেন।”

মুন্সীগঞ্জের মাওয়া পয়েন্ট এবং শরীয়তপুরের জাজিরা পয়েন্টের সঙ্গে সংযোগকারী পদ্মা বহুমুখী সেতু ক্ষমতাসীন দলের একটি স্বপ্নের প্রকল্প। এ সেতু যাত্রী ও মালবাহী যানবাহনের যাতায়াত সহজ করবে এবং এর মাধ্যমে দেশের জিডিপি ১.৩-২% বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ (বিবিএ) ইতোমধ্যে ১৮টি প্রস্তুতি কমিটি এবং উপ-কমিটি গঠন করেছে।

আগামী ২৫ জুন বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মুন্সীগঞ্জে পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি ৬.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ দ্বিতল সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করার পর সাত বছরেরও কম সময়ের মধ্যে এটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।

বহুল আলোচিত এই প্রকল্পের আওতায় সড়ক ও রেল যোগাযোগ উন্নয়নে সরকার এ পর্যন্ত প্রায় ৮০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করেছে।

সেতুর নিচের ডেক দিয়ে রেল সংযোগ স্থাপন এবং নদী শাসন কাজ আগামী বছরের জুনে শেষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প কর্মকর্তারা।

ইতোমধ্যে মোটরসাইকেলের জন্য ১০০ টাকা, প্রাইভেট কার ও জিপের জন্য ৭৫০ টাকাসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের জন্য টোল হার ঘোষণা করা হয়েছে।

মাদারীপুর-১ আসনের পাঁচবারের সংসদ সদস্য লিটন বলেন, “ঐতিহাসিক দিনে প্রধানমন্ত্রীকে উৎসবমুখর পরিবেশে গ্রহণ করার জন্য এই অঞ্চলের মানুষ অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে।”

২০১৮ সালের নির্বাচনী প্রচারণার সময় শেখ হাসিনা দেশের এই অংশে সর্বশেষ জনসভায় যোগ দিয়েছিলেন।

২০১৫ সালের ১২ ডিসেম্বর পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটিকে দেশের মানুষের জন্য একটি "ঐতিহাসিক অর্জন” এবং দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য একটি আনন্দের দিন বলে অভিহিত করেন। তিনি সেদিন বলেছিলেন, সকল অপপ্রচার উপেক্ষা করে তার সরকার স্বপ্নের সেতু নির্মাণে অটল রয়েছে।

About

Popular Links