Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নিহত বেড়ে ৩৩, পরিচয় শনাক্তে লাগতে পারে ডিএনএ টেস্ট

আগুন নেভাতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচজন কর্মীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন 

আপডেট : ০৫ জুন ২০২২, ০১:২১ পিএম

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের বিএম কন্টেইনার ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় অন্তত ৩৩ জন নিহত ও ৪৫০ জনের বেশি আহত হয়েছেন। ফায়ার সার্ভিস বলেছে, নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে তাদের একজন কর্মী আছেন।

রবিবার (৫ জুন) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পুলিশ সূত্র এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ৩৩ জনের লাশ এসেছে। লাশগুলো হাসপাতালের মর্গে রাখা আছে। যে লাশগুলো আনা হয়েছে, সেগুলো চেনার উপায় নেই। পরিচয় শনাক্তে ডিএনএ টেস্ট করা লাগতে পারে।”

তিনি জানিয়েছেন, আগুন নেভাতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচজন কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে ২১ জন। আহতরা সিএমএইচে চিকিৎসাধীন। কয়েকজন কর্মীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এদিকে সকালে উদ্ধার করা লাশগুলোর মধ্যে তিনজনের পরিচয় জানা গেছে। তারা হলেন- ডিপোর আইসিটি কাউন্টারে কর্তব্যরত মবিনুল হক, মহিউদ্দিন (২৪) ও হাবিবুর রহমান (২৩)।

সিএমসিএইচ পুলিশ ফাঁড়ির এসআই আলাউদ্দিন তালুকদার গণমাধ্যমকে বলেন, “১০০ জনের বেশি আহতকে ১৫টি অ্যাম্বুলেন্স ও গাড়িতে করে চমেকে আনা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৫০ জনকে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।”

ডিপোর পরিচালক মুজিবুর রহমান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “কি কারণে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে কন্টেইনার থেকেই আগুন ধরেছে বলে ধারনা করছি।”

অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রধানমন্ত্রী দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রণে এনে উদ্ধার তৎপরতা পরিচালনা এবং ক্ষতিগ্রস্তদের সর্বাত্মক সহযোগিতায় সরকারের পাশাপাশি দলীয় নেতাকর্মীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

About

Popular Links