Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নিখোঁজ হন কুয়াকাটা সৈকতে, খোঁজ মিললো চেন্নাইয়ে

গত ২৭ মে দুপুরে বন্ধুদের সঙ্গে কুয়াকাটার জিরো পয়েন্টে বঙ্গোপসাগরে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হন ওই যুবক

আপডেট : ০৫ জুন ২০২২, ১২:২৭ পিএম

ভাগ্নে ও বন্ধুদের সঙ্গে পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকতে বেড়াতে গিয়ে ৭ দিন আগে নিখোঁজ হয়েছিলেন ফিরোজ সিকদার (২৯)। নিখোঁজের এক সপ্তাহ পর তার সন্ধান মিললো ভারতের চেন্নাইয়ে। তামিলনাড়ুর রাজধানীতে তিনি বর্তমানে স্থানীয় প্রশাসনের জিম্মায় চিকিৎসাধীন আছেন।

শনিবার (৪ জুন) ফিরোজের মেজ ভাই মাসুম সিকদারের বরাত দিয়ে করা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণ।

পেশায় ব্যবসায়ী ফিরোজ শিকদার পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার আমখোলা ইউনিয়নের আমখোলা বাজারের বাসিন্দা। আমখোলা বাজারে ভাই ভাই গার্মেন্টস নামে তার একটি দোকান আছে। ২৬ মে এক ভাগনে ও বন্ধুদের সঙ্গে কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকতে বেড়াতে এসে রয়্যাল প্যালেস নামের একটি আবাসিক হোটেলে উঠেন। পরদিন ২৭ মে দুপুর ১২টার দিকে সবাই মিলে সাগরে গোসল করতে নামলে ফিরোজ সিকদার নিখোঁজ হন।

শনিবার দুপুরে মুঠোফোনে মেজো ভাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগের সময়ে ফিরোজ নিজের বর্তমান অবস্থা থেকে শুরু করে কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকত থেকে চেন্নাইয়ে ভেসে আসার কথা বর্ণনা করেন। পরে মাসুম সিকদার ফিরোজের সন্ধান পাওয়ার বিষয়টি কুয়াকাটা টুরিস্ট পুলিশকে জানান।

মাসুম সিকদার জানান, ২৭ মে দুপুরে বন্ধুদের সঙ্গে কুয়াকাটার জিরো পয়েন্টে বঙ্গোপসাগরে নেমে ফিরোজ প্রায় তিন ঘণ্টা গোসল করেন। হঠাৎ ঢেউয়ের তোড় ফিরোজকে ভাসিয়ে নিয়ে যায়। প্রাণপণ চেষ্টা করেও ফিরোজ উপকূলে আসতে পারছিলেন না। পরে এক পর্যায়ে কলাগাছ ভেসে যেতে দেখে দুই হাত দিয়ে তা জাপটে ধরে ভেসে থাকেন।

ভাসমান অবস্থা থেকে ফিরোজ কীভাবে চেন্নাইয়ে পৌঁছালেন তা জানিয়ে মাসুম জানান, কলাগাছ জাপটে ধরে ফিরোজ প্রায় ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় সাগরে ভেসে ছিলেন। এ সময়ে সেখান দিয়ে ভারতীয় জেলেদের মাছ ধরার একটি ট্রলার যাচ্ছিলো। জেলেরাই পরে ফিরোজকে উদ্ধার করে ট্রলারে ওঠায়। ট্রলারে ওঠার পর ফিরোজ স্বাভাবিক হন। পরে ভারতীয় জেলারা ফিরোজকে সঙ্গে করে চেন্নাইয়ে নিয়ে যান। ফিরোজের বিষয়টি সেখানকার প্রশাসনকেও জানিয়েছেন জেলেরা।

টুরিস্ট পুলিশের কুয়াকাটা জোনের সহকারী সুপার আবদুল খালেক জানান, চেন্নাইয়ে ফিরোজের সন্ধানের বিষয়টি তারা জেনেছেন। এ বিষয়ে খোঁজখবরও নেওয়া হচ্ছে।

গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশিস কুমার জানান, সরকারিভাবেই ফিরোজকে ভারত থেকে দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।    


About

Popular Links