Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘তরুণীর সঙ্গে কথা বলায়’ দুই তরুণকে ন্যাড়া করে দিলেন ইউপি সদস্য!

ন্যাড়া করার পর তাদের মাথায় আলকাতরা দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ

আপডেট : ১০ জুন ২০২২, ১২:৪৭ পিএম

পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় এক তরুণীর সঙ্গে কথা বলায় দুই তরুণের মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা মেখে দেওয়া হয়েছে। এমন অভিযোগ উঠেছে উপজেলার চরবিশ্বাস ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আবু সায়েম গাজীর বিরুদ্ধে। উপজেলার চরবাংলা গ্রামের বাসিন্দা দুই ভুক্তভোগীর বয়স যথাক্রমে ২০ ও ২২ বছর।

মঙ্গলবার (৭ জুন) বিকেলে চরবিশ্বাস ইউনিয়নের চর মহিউদ্দিন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার এক তরুণের বাবা জানান, মঙ্গলবার দুপুরে চরবাংলা গ্রামের একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে বরযাত্রী হিসেবে যান তার ছেলে। ওই বাড়িতে দুপুরে খাবারের পর বাড়ির পাশে স্থানীয় এক মেয়ের সঙ্গে কথা বলে তার ছেলে এবং ভুক্তভোগী অন্য তরুণ।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই মেয়ের ভাই তাদের দুজনকে মারধর করে।

এক পর্যায়ে ইউপি সদস্য আবু সায়েম গাজী ঘটনাস্থলে যান। তিনি শালিস বৈঠক বসিয়ে ওই দুই তরুণকে ফের মারধর করেন এবং নিজ হাতে ব্লেড দিয়ে মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা মেখে দেন।

ভুক্তভোগী তরুণদের দাবি, “আমরা কোনো অপরাধ করিনি। আমরা সমাজে মুখ দেখাতে পারছি না। এ ঘটনার বিচার চাই আমরা।”

চর বিশ্বাস ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড চর বাংলার ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য হাসান সর্দার বলেন, “ছেলেরা অপরাধ করলে তার বিচারের সুযোগ আছে। অভিভাবকদের ডেকে বলা যেত। কিন্তু এভাবে মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা দেওয়ার ঘটনা অমানবিক। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।”

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য সদস্য আবু সায়েমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “কোনো শালিস বৈঠক হয়নি এবং আমি কারও মাথা ন্যাড়া করে দেইনি। আর যদি এমনটি হয়ে থাকে তবে তার ভিডিও ফুটেজ কোথায়।”

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, “আমি বিষয়টি শুনেছি কিন্তু এখনও কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

About

Popular Links