Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

গাজীপুরে নারীসহ একই পরিবারের তিনজনকে পিটুনির ভিডিও ভাইরাল, গ্রেপ্তার ১

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এ হামলার ঘটনা ঘটে

আপডেট : ১৩ জুন ২০২২, ১০:৫৫ এএম

গাজীপুরের শ্রীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধে এক নারীসহ একই পরিবারের তিনজনকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে।এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, এক বৃদ্ধ ও তার সঙ্গে থাকা এক নারীসহ দুইজনকে বেশ কয়েকজন মিলে বেধড়ক পেটাচ্ছেন। মার খেয়ে মাটিতে পড়ে যাওয়ার পরও দুজনকে লাঠি দিয়ে পেটানো হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শনিবার (১১ জুন) সকাল ৮টায় উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের শৈলাট (দক্ষিণ পাড়া) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- শৈলাট গ্রামের সেকান্দর আলী টিপু (৬০), তার স্ত্রী রাজিয়া খাতুন (৪০) এবং ছেলে জাফর ইকবাল (২৮)। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় স্বজনেরা তাদের উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

আহত সেকান্দর আলী টিপুর মেয়ে সাগরকিা সুলতানা পুষ্পা জানান, একই গ্রামের চান মিয়ার সঙ্গে দীর্ঘদিন যাবত তাদের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে অভিযুক্ত চান মিয়া (৫০), চান মিয়ার স্ত্রী নাজমা বেগম (৪৫), তার ছেলে আতিকুর রহমান (২৮) এবং তাদের সহযোগী আহাম্মদ আলী (৪৫) ও মো. হাফিজসহ (৩২)কয়েকজন মিলে বিরোধপূর্ণ জমির চারপাশে সিমেন্টের পিলার পুঁতে এবং জমিতে নিজেদের ক্রয়কৃত দাবি করে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়।

তিনি আরও জানান, শনিবার সকালে সেকান্দর আলী টিপু জমির চারপাশে পিলার ও সাইনবোর্ড টানানোর কারণ জিজ্ঞাসা করলে চান মিয়ার নেতৃত্বে তার লোকজ সেকান্দর আলী ও তার ছেলের ওপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে। এ সময় রাজিয়া খাতুন এগিয়ে এলে তাকেও মারপিট করা হয়। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে গুরুতার আহত অবস্থায় মাওনা আলহেরা হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় শনিবার রাতে শ্রীপুর থানায় মামলা করেন জাফর ইকবাল। মামলায় ১৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে আরও ১০-১২ জনকে।

এদিকে, এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মোছা. শম্পা (২৬) নামে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে তাকে শৈলাট গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার  শম্পা মো. হাফিজ উদ্দিনের স্ত্রী।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান।

তিনি বলেন, “জমি সংক্রান্ত বিষয়ে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। মামলা দায়েরের পর একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।বাকিদেরও গ্রেপ্তার করা হবে।”

About

Popular Links