Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ছাত্রের মারধরে শিক্ষকের মৃত্যু

সাভারের আশুলিয়ায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রের বিরুদ্ধে উৎপল কুমার সরকার (৩৫) নামের এক স্কুল শিক্ষককে ক্রিকেট স্ট্যাম্প দিয়ে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে

আপডেট : ২৭ জুন ২০২২, ০২:০২ পিএম

সাভারের আশুলিয়ায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রের বিরুদ্ধে উৎপল কুমার সরকার (৩৫) নামের এক স্কুল শিক্ষককে ক্রিকেট স্ট্যাম্প দিয়ে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। দুই দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

সোমবার (২৭ জুন) ভোরে তার মৃত্যু হয়। বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন আশুলিয়া থানা পুলিশের পুলিশে উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমদাদুল হক।

নিহত উৎপল কুমার সরকার আশুলিয়ার হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ছিলেন। কলেজের শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতিও ছিলেন তিনি। তার গ্রামের বাড়ি  সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়ায় থানার এঙ্গেলদানি এলাকায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উৎপল কুমার সরকার প্রায় ১০ বছর ধরে হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ও শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। মারধরের অভিযোগ ওঠা শিক্ষার্থীর (১৬) বাড়ি আশুলিয়ায়। সে হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র।

হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সাইফুল হাসান বলেন, “শনিবার স্কুলে মেয়েদের ক্রিকেট খেলা চলছিল। শিক্ষক উৎপল কুমার মাঠের পাশে দাড়িয়ে খেলা দেখছিলেন। দুপুরের দিকে হঠাৎ করেই ওই শিক্ষার্থী মাঠ থেকে ক্রিকেট খেলার স্ট্যাম্প নিয়ে দাড়িয়ে থাকা শিক্ষকের ওপর এলোপাথাড়ি আঘাত করতে থাকে। পরে শিক্ষকেরা এগিয়ে গেলে ওই ছাত্র সেখান থেকে সটকে পড়ে।”

তিনি আরও বলেন, “উৎপল স্যারকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে আশুলিয়া নারী ও শিশু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে এনাম মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের আইসিউতে রাখা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকালে তিনি মারা যান।”

স্কুলের অধ্যক্ষ আরও বলেন, “উৎপল স্যার স্কুলের শৃঙ্খলা ও পরিবেশ কমিটির আহবায়ক। তিনি ছাত্রদের চুল কাটতে বলাসহ বিভিন্ন আচরণগত সমস্যা নিয়ে কাউন্সেলিং করেন। বিভিন্ন অপরাধের বিচারও করেন তিনি। সে কারণেই তার উপর ওই ছাত্রটির কোনো ক্ষোভ থাকতে পারে।”

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমদাদুল হক বলেন, “এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হবে। এছাড়াও ঘটনার সঙ্গে জড়িত ওই ছাত্রকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।”

About

Popular Links