Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ইসি সচিব: উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রপাগান্ডা চালানো হচ্ছে

"আমি প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা। স্বাধীন প্রতিষ্ঠান নির্বাচন কমিশনে কাজ করি"

আপডেট : ২৪ নভেম্বর ২০১৮, ০৭:৩১ পিএম

নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেছেন, চাপ সৃষ্টি করার জন্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রপাগান্ডা চালানো হচ্ছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের জয়ের জন্য পুলিশ ও সরকারি কর্মকর্তাদের মধ্যে গোপন বৈঠক চলছে, বিএনপির এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ কথা বলেন।  

তিনি বলেন, "চাপ সৃষ্টি করার জন্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই মিথ্যা প্রপাগান্ডা চালানো হয়েছে। আমাকে বিতর্কিত ও হেয় করার জন্য এ অভিযোগ আনা হয়েছে। আমি কোথাও কোনও বৈঠকে অংশ নেইনি।"

শনিবার (২৪ নভেম্বর) সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনে ইসি সচিব এসব কথা বলেন।

এই অভিযোগকে সম্পূর্ণ মিথ্যা দাবি করে সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “আপনার জানেন আমি এখানে রাত ৮টা/ ৯টা পর্যন্ত অফিস করি। আমি প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা। স্বাধীন প্রতিষ্ঠান নির্বাচন কমিশনে কাজ করি। ইসির সব আদেশ-নিষেধ মেনে চলি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রপাগান্ডা চালানো হচ্ছে। এর তীব্র নিন্দা জানাই।”

মিথ্যা অভিযোগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন কিনা এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “বিভিন্ন অভিযোগ নিয়ে রবিবার (২৫ নভেম্বর) কমিশন সভা করবে। সেখানে এ বিষয়টি উপস্থাপন করা হবে। কমিশন যেভাবে সিদ্ধান্ত দেবে সেভাবেই হবে।”

প্রসঙ্গত, এর আগে শনিবার দুপুরে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেন, নৌকার প্রার্থীদের জয়ী করতে পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিদের প্রতিনিয়ত গোপন বৈঠক চলছে। 

রিজভী তার বক্তব্যে বলেন, “প্রশাসন ও পুলিশের বির্তর্কিত কর্মকর্তারা জনসমর্থনহীন আওয়ামী লীগকে ফের ক্ষমতায় বসানোর জন্য নানা চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। ২০ নভেম্বর রাতে ঢাকা অফিসার্স ক্লাবের চার তলার পেছনের কনফারেন্স রুমে গোপন মিটিং হয়েছে। এতে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সচিব সাজ্জাদুল হাসান, জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহমদ, নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, পানিসম্পদ সচিব (শেখ হাসিনার অফিসের প্রাক্তন ডিজি) কবির বিন আনোয়ার, বেসামরিক বিমান পরিবহন সচিব মহিবুল হক, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার ও মহানগরী রিটার্নিং অফিসার) সদস্য সচিব আলী আজম, প্রধানমন্ত্রীর এপিএস-১ (বিচারক কাজী গোলাম রসুলের মেয়ে) কাজী নিশাত রসুল। এছাড়াও পুলিশের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন র্যা ব, ডিএমপি ও কাউন্টার টেরোরিজমের কর্মকর্তারা।”


About

Popular Links