Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বাসের নিচে চাপা পড়তে যাওয়া শিশুকে বাঁচালেন এসআই

ওই পুলিশ কর্মকর্তা সময়মত এগিয়ে না এলে বাসের নিচে চাপা পড়ে শিশুটির প্রাণহানি হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। ঘটনার পর বাসটিকে আটক করা হয়েছে

আপডেট : ০৮ জুলাই ২০২২, ১০:৪১ পিএম

এ যেন সিনেমার মতো দৃশ্য। সাইকেলসহ বাসের নিচে চাপা পড়তে যাওয়া এক স্কুলছাত্রকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ধাক্কা দিয়ে বাঁচালেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। মোড় নেওয়ার সময় বাসটির পেছনের দুই চাকা সড়ক থেকে সরে আসলে ফুটপাতে থাকা শিশুটি বাসের নিচে চলে যাওয়ার উপক্রম হয়। এ সময় পাশেরি চেকপোস্টে দায়িত্বরত এক পুলিশ কর্মকর্তা ধাক্কা দিয়ে শিশুটিকে সড়ক থেকে দূরে সরিয়ে দেন। তিনিও নিরাপদ দূরত্বে চলে যান।

এমনই সিনেমার গল্পের মতো ঘটনা ঘটেছে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায়। শুক্রবার (৮ জুলাই) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা সানভী পরিবহন নামে একটি বাস উপজেলার চরখালী বিসমিল্লাহ চত্বর থেকে মোড় নেওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।

বাসের চাকার নিচ থেকে বেঁচে যাওয়া শিশুটির নাম আবিদ শাহরিয়ার; তিনি একই এলাকার আক্তারুজ্জামান আবু মল্লিকের ছেলে এবং ভান্ডারিয়া বিহারী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্র।

জীবন বাজি রেখে শিশুকে বাঁচানো পুলিশ কর্মকর্তার নাম মো. সিদ্দিক হোসেন; তিনি ভান্ডারিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হিসেবে কর্মরত আছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, বাসটি চরখালী বিসমিল্লাহ চত্বর থেকে মোড় নেওয়ার সময় আবিদ শাহরিয়ার বাম দিক দিয়ে সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় সঠিকভাবে মোড় না নেওয়ার কারণে বাসটির পেছনের অংশ সড়কের বাইরে চলে যায়। ফলে সাইকেল আরোহী আবিদ বাসের পেছনের চাকার নিচে পড়তে যাচ্ছিলেন। পরে চেকপোস্টে দায়িত্বরত সিদ্দিক হোসেন ঝাঁপিয়ে পড়ে আবিদকে ধাক্কা মেরে সড়কের বাইরে সরিয়ে দেন। ফলে বাসের নিচে চাপা পড়তে পড়তে অল্পের জন্য বেঁচে যান আবিদ।

আবিদ শাহরিয়ারের বাবা ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, চরখালী কলেমা চত্বরে তার মোটরপার্টস ও হার্ডওয়্যারের দোকান রয়েছে। শুক্রবার দুপুরে তার ছেলে আবিদ শাহরিয়ার বাড়ি থেকে দোকানে আসছিল। পুলিশ কর্মকর্তার কারণে তার ছেলের জীবন রক্ষা পেয়েছে। এ জন্য তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা সিদ্দিক হোসেন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “আল্লাহর রহমতে শিশু আবিদকে বাঁচাতে পেরেছি। বাসটি আটক করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।”

About

Popular Links