Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নির্ধারিত সময়ে যৌন নিপীড়কদের শাস্তি, নইলে পদত্যাগের ঘোষণা চবি রেজিস্ট্রারের

জড়িতদের চার কার্যদিবসের মধ্যে শাস্তি নিশ্চিতের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম মনিরুল হাসান

আপডেট : ২১ জুলাই ২০২২, ০৯:৪৪ এএম

এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে মাঝরাতে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ছাত্রীরা। তাদের দাবি মেনে এ ঘটনায় জড়িতদের চার কার্যদিবসের মধ্যে শাস্তি নিশ্চিতের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম মনিরুল হাসান। অন্যথায় অন্যদের সঙ্গে নিয়ে দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। 

গত রবিবার (১৭ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী যৌন হয়রানির শিকার হন। এ ইস্যুতে নানা আলোচনার মধ্যে গত ১৯ জুলাই চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের আবাসিক হলে রাত ১০টার মধ্যে প্রবেশের সময়সীমা বেধে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এ ঘোষণার পর ছাত্রীদের রাত ১০টার মধ্যে হলে প্রবেশের বাধ্যবাধকতা বাতিল ও নিরাপদ ক্যাম্পাসসহ চার দফা দাবিতে উপাচার্যের (ভিসি) বাসভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন চবির বিভিন্ন হলের ছাত্রীরা। বুধবার (২০ জুলাই) রাত ১০টা থেকে এ কর্মসূচিতে নামেন তারা। মাঝরাত পর্যন্ত তারা সেখানেই অবস্থান করছিলেন।

খবর পেয়ে সেখানে ছুটে আসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এস এম মনিরুল হাসান, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা। তারা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের শান্ত করে হলে ফেরানোর চেষ্টা করেন। পরে তিনি চার কার্যদিবসের মধ্যে শাস্তি নিশ্চিত করার আশ্বাস দিলে আন্দোলন স্থগিত করেন ছাত্রীরা। 

রেজিস্ট্রার বলেন, ‘‘শিক্ষার্থীকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের চার কার্যদিবসের মধ্যে শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। এ বিষয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। তারা আশ্বস্ত হয়ে রাত সাড়ে ১২টার দিকে আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করে হলে ফিরে গেছে। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কার্যক্রম বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে। শিক্ষার্থীদের বলেছি, শাস্তি নিশ্চিত করতে না পারলে আমরা দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াবো।’’

আন্দোলনকারী চবি পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী আশরাফী নিতু বলেন, ‘‘আমাদের চার দফা দাবি মেনে নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, ঘটনায় জড়িতদের চার কার্যদিবসের মধ্যে শাস্তি নিশ্চিত করবেন। তার কথায় আস্থা রেখে আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করেছি আমরা। এর মধ্যে প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন না হলে আবারও আন্দোলনে নামবো আমরা।’’

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ২৪ ঘণ্টা নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, অকার্যকর যৌন নিপীড়ন সেল কার্যকর করা, রাত ১০টার পরে প্রবেশের নির্দেশ বাতিল করা ও চার দিনের মধ্যে চলমান সকল হয়রানির ইস্যুর বিচার করা।

About

Popular Links