Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রেমের টানে বাংলাদেশে এসে আটক, পাঁচ মাস পর ফিরে গেলেন ভারতীয় তরুণী

ফ্রি ফায়ার গেম খেলতে খেলতে কুষ্টিয়ার এক তরুণের সঙ্গে ওই ভারতীয় তরুণীর পরিচয় হয়

আপডেট : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:৪৪ পিএম

প্রেমের টানে গত বছরের শেষদিকে বাংলাদেশে এসেছিলেন এক ভারতীয় তরুণী। গত মার্চে তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক হন। এর ৫ মাস ১৩ দিন পর ১৮ বছর বয়সী ওই তরুণী অবশেষে দেশে ফিরেছেন।

অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন জানায়, ওই তরুণী ভারতের নদীয়া জেলার রাধাকান্তপুরের বাসিন্দা। আইনি প্রক্রিয়া শেষে রবিবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা জয়নগর চেকপোস্ট দিয়ে তাকে ভারতে পাঠানো হয়।

দর্শনা জয়নগর চেকপোস্টের ইমিগ্রেশন ইনচার্জ আবু নাইম বলেন, দুই বছর আগে অনলাইনে ফ্রি ফায়ার গেম খেলতে গিয়ে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার কুমারগাড়া এলাকার আব্দুল হালিমের ছেলে ওমর আলীর সঙ্গে ওই ভারতীয় তরুণীর পরিচয় হয়। পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

তিনি আরও বলেন, পরবর্তীতে ওই ভারতীয় তরুণী ২০২১ সালের ১৪ নভেম্বর সাতক্ষীরা সীমান্ত দিয়ে কুষ্টিয়ায় ওমর আলীর বাড়িতে আসেন। পরদিন কুষ্টিয়া আদালতে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে ওমর আলী আর ওই তরুণী বিয়ে করেন।

আবু নাইম বলেন, কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট গত ২১ মার্চ ওই ভারতীয় তরুণীকে আটক করে। আটকের পরদিন সকালে ওই তরুণীকে আদালতে তোলা হয়। বয়স কম হওয়ার কারণে আদালত তাকে কুষ্টিয়ার সামাজিক, প্রতিবন্ধী ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে রাখার নির্দেশ দেন। রবিবার তাকে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়।

বাংলাদেশের পক্ষে এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় হাইকমিশনারের ডেপুটি কনসোলার দেবব্রতী চক্রবর্তী, বিজিবির দর্শনা আইসিপি কমান্ডার নায়েব সুবেদার আব্দুল জলিল, কুষ্টিয়া সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহির উদ্দিন। 

অন্যদিকে, ভারতের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বিএসএফের গেদে কোম্পানি কমান্ডার এস এ নগেন্দ্র হালদার, গেদে ইমিগ্রেশন ইনচার্জ সন্দীপ তেওয়ারি, নদীয়া জেলার কৃষ্ণগঞ্জ থানার ইনচার্জ বাপিন মুখার্জি, গেদে কাস্টমস সুপার অজয় নারায়ণ রায় ও কাস্টমস ইন্সপেক্টর প্রশান্ত কুমার ঘোষ।

About

Popular Links