Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে এসে পুলিশের হাতে ধরা পড়লো চোর

অটোরিকশা চুরির তদন্ত কার্যক্রমের স্বার্থে আসামি শরীফের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়েন এক নারী পুলিশ সদস্য

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২২, ১১:২৯ এএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রেমের সম্পর্ক গড়ে দুই অটোরিকশা চোরকে ধরার পর তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চোরচক্রের আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে চুরি হওয়া ব্যাটারিচালিত দুটি অটোরিকশা। আখাউড়া থানা পুলিশ এ অভিযান চালায়।

পুলিশ জানিয়েছে, চক্রটি চালকের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে কোমলপানীয়ের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে অজ্ঞান করে অটোরিকশা ছিনিয়ে নেয়।

গ্রেপ্তার চারজনকে মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাদের রিমান্ড আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- বিজয়নগর উপজেলার ইব্রাহিমপুরের মাসুক মিয়া (৩৫), কেনা গ্রামের কাশেম মোল্লা (৩১), একই এলাকার শরীফ (২৪), এরশাদ মিয়া (৪৩)। 

আখাউড়া থানা পুলিশ জানায়, সম্প্রতি বিজয়নগর উপজেলার কচুয়ামোড়া গ্রামের ছালেকুজ্জামানের ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা আখাউড়ার খড়মপুর এলাকা থেকে চুরি হয়। তার সঙ্গে সখ্যতা গড়ে কোমলপানীয়ের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে অটোরিকশাটি নিয়ে যায় চক্রটি। 

এ ঘটনায় আখাউড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দেন ছালেকুজ্জামান। ঘটনা তদন্তের দায়িত্ব পান থানার এসআই মো. মঈন উদ্দিন। তদন্ত কার্যক্রমের স্বার্থে আসামি শরীফের সঙ্গে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়েন এক নারী পুলিশ সদস্য। সোমবার দেখা করার কথা বলে তাকে খড়মপুর এলাকায় আসতে বলা হয়। সেখানে এলে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় সরকার ও এসআই মঈন উদ্দিন অভিযান চালিয়ে শরীফ ও তার সহযোগী এরশাদকে গ্রেপ্তার করেন। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আরও দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার ও দুটি অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় সরকার অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, “শরীফ ওই চালককে ফোন করে ভাড়ার কথা বলে নিয়ে যায়। যে কারণে তার মোবাইল ফোন নম্বর চালকের কাছে পাওয়া যায়। এরপর কৌশলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে চক্রের সদস্যদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।”

About

Popular Links