Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘আল্লাহর নামে চললাম’ লিখে উধাও স্কুলছাত্রকে পাওয়া গেল চায়ের দোকানে

স্কুলের বন্ধুকেও সে বলেছিল, ‘আর কোনোদিন দেখা হবে না’

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:০৩ এএম

প্রায় ২৭ ঘণ্টা পর খোঁজ মিলেছে বাবাকে চিঠি লিখে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাওয়া কুষ্টিয়ার স্কুলছাত্র সামিউল ইসলাম স্বপ্নের (১১)।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) রাত ৮টার দিকে মিরপুর উপজেলার জিয়া সড়কে একটি চায়ের দোকানে তাকে পাওয়া যায়। স্কুলছাত্র সামিউলের বাবা তারেক আহমেদ ঢাকা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এর আগে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার বারুইপাড়া ইউনিয়নের একতারপুর তাঁতিবন্দ গ্রামের বাড়ি থেকে সে বেরিয়ে যায়।

তারেক আহমেদ জানান, বাড়ি থেকে বেরিয়ে মঙ্গলবার ট্রেনে উঠে যশোরে চলে যায় সামিউল। বুধবার রাত ৮টার দিকে জিয়া সড়কের একটি চায়ের দোকানে তাকে পাওয়া যায়।  

স্কুলছাত্রের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সামিউল স্কুলে যায়। স্কুলে দুটি ক্লাসের পর সে প্রধান শিক্ষকের কাছে ছুটি নিয়ে বাড়ি চলে আসে। পরে বিকেল থেকে তার আর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।


আরও পড়ুন- ‘আল্লাহর নামে চললাম' চিঠিতে লিখে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ‘উধাও'


সামিউলের বন্ধু নাবিল জানায়, সেদিন ক্লাস করার সময় সামিউল বলেছিল, “আর কোনোদিন দেখা হবে না।” এরপর সে ছুটি নিয়ে বাড়ি চলে যায়।

শিশুটির মা জানান, তিনি ও তার স্বামী কুঠি শিল্পে চাকরি করেন। ছেলের কাছে বাড়ির চাবি রেখে তারা প্রতিদিন কাজে চলে যান। মঙ্গলবার কর্মস্থল থেকে বাড়ি ফিরে দেখেন ঘরে তালা দেওয়া। এ সময় আশপাশে সব জায়গায় খোঁজ করেও ছেলেকে পাননি। পরে ঘরের তালা ভেঙে বিছানার ওপর সামিউলের স্কুল ব্যাগ, বই, খাতা, টিফিন বক্স ও একটি চিঠি দেখতে পান।

তিনি আরও বলেন, বাবাকে সামিউল লিখেছে- “আব্বু তুমি আমাকে মাফ করে দিও। আমি চললাম আল্লাহর নামে। তোমরা সবাই ভালো থেকো। কেউ কষ্ট পাবে না। তোমাদের যদি কোনো ক্ষতি হয়, আমি সব খবর রাখবো। আমাকে খবর দেবে একজন। তোমরা আমাকে খুঁজবা না। আর যদি খোঁজো তাহলে আমাকে জীবিত পাবে না।”

About

Popular Links