Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নারীকে চাপা দিয়ে চারুকলা থেকে নীলক্ষেত টেনে নিলো ঢাবি শিক্ষকের গাড়ি

প্রাইভেট কারের পেছনের বাম্পারের সঙ্গে জামা আটকে যায়। এরপর গাড়িটি চারুকলা অনুষদের সামনে থেকে ওই নারীকে সড়কে পিষে-টেনে নীলক্ষেতের ফটক পর্যন্ত নিয়ে যায়

আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৪৯ পিএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সাবেক সহযোগী অধ্যাপকের গাড়ির নিচে চাপা পড়া এক নারীকে সড়কে পিষে-টেনে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত ওই নারী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) বেলা ৩টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। পরে উত্তেজিত জনতা গাড়ির ড্রাইভারকে গণপিটুনি দেয় এবং গাড়িটি ভাঙচুর করে।

নিহত ওই নারীর নাম রুবিনা আক্তার। তিনি রাজধানীর তেজকুনিপাড়া এলাকার মৃত মাহবুবর রহমান খান ডলারের স্ত্রী। তিনি এক ছেলের জননী। ছেলের নাম রোহান, সে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. জাফর। 

আরও পড়ুন- মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ফিরে গেলেন ১৯৯৩ সালে, স্ত্রীকে দিলেন বিয়ের প্রস্তাব

তিনি বলেন, “রুবিনা আক্তার তার দেবর নুরুল আমিনের মোটরসাইকেলে করে ভাইয়ের বাসা হাজারীবাগ যাচ্ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সামনে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয় একটি প্রাইভেট কার। এতে দুইজনই মোটরসাইকেল থেকে পড়ে যান। এ সময় প্রাইভেট কারের পেছনের বাম্পারের সঙ্গে নিহত রুবিনার জামার কাপড় আটকে যায়। আর এই অবস্থায় তাকে পিষে-টেনে নীলক্ষেতের ফটক পর্যন্ত নিয়ে যায়।”

তিনি আরও বলেন, “গাড়িটি থামানোর জন্য আশপাশের মানুষ চিৎকার করে ডাকছিল, সিগনাল দিচ্ছিলেন, কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। শেষে নীলক্ষেতের ফটক পর্যন্ত যাওয়ার পর কাপড় ছিঁড়ে ছুটে যায়। তখন আশপাশের লোকজন ঐ চালককে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন এবং গাড়িটি ভাঙচুর করেন। তাকেও চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়।”

পুলিশ এসে গুরুতর আহত ওই নারী ও চালককে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে নেওয়ার পর ওই নারীকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

আরও পড়ুন- এক বছরে সড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মৃত্যু বেড়েছে ১৯.২৮%

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, “ওই নারীকে আহত অবস্থায় জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।”

About

Popular Links