Tuesday, June 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অভাবের সংসারে শাড়ি কিনে আনায় স্ত্রীর ‘আত্মহত্যা’

৩ ডিসেম্বর সকালে বাজার থেকে শখ করে স্ত্রীর জন্য একটি শাড়ি কিনে বাসায় ফেরেন প্রকাশ

আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১৩ পিএম

অভাবের সংসারে শাড়ি কিনে আনায় স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার এক গৃহবধূ। ওই গৃহবধূর নাম রুমা আক্তার (২৭)। তিনি টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্ল্যা গ্রামের বাসিন্দা এবং মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলা এলাকার প্রকাশের স্ত্রী।

শনিবার (৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন- ভালোবেসে বিয়ের দুই মাস পর স্বামী-স্ত্রীর আত্মহত্যা

বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রকিবুল হাসান।

তিনি জানান, কয়েক বছর আগে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্ল্যা গ্রামের আশুতোষের মেয়েকে বিয়ে করেন মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ার প্রকাশ। বিয়ের কিছুদিন পর জীবিকার তাগিদে তারা গাজীপুরের কালিয়াকৈরে চলে আসেন। সেখানে রুমার স্বামী স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি নেন। চাকরি নেওয়ার কিছুদিন পর রুমার স্বামী অসুস্থ হয়ে পড়লে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা করালেও সুস্থ হননি। পরে ঢাকার একটি হাসপাতালে রুমা তার স্বামীকে বিভিন্ন চেকআপ করালে ক্যান্সার ধরা পড়ে। এরপর থেকে অসুস্থ স্বামীকে নিয়েই দিন কাটছিল রুমার।

আরও পড়ুন-  ‘আত্মহত্যার স্বীকারোক্তি' লেখানোর পর মেয়েকে হত্যা করেন বাবা

তিনি আরও জানান, ৩ ডিসেম্বর সকালে বাজার থেকে শখ করে স্ত্রীর জন্য একটি শাড়ি কিনে বাসায় ফেরেন প্রকাশ। স্ত্রীর হাতে কাপড় তুলে দিলে রুমা রাগ করে বলেন, “তোমার কোনো রোজগার নেই, তুমি কেন আমার জন্য কাপড় আনতে গেলে”। এর কিছুক্ষণ পর পাশের ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পান প্রকাশ। তখন স্ত্রীকে ডাকাডাকি করে কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে ডাক-চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসেন। এরপর তাদের সহযোগিতায় ঘরের দরজা ভেঙ্গে স্ত্রী রুমা আক্তারকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলতে দেখেন।

সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয়রা রুমাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসআই রকিবুল জানান, খবর পেয়ে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়। কোনো অভিযোগ না থাকায় বিনা ময়না তদন্তে মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

About

Popular Links