Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘আত্মরক্ষার কৌশল ও আত্মবিশ্বাস উন্নয়নে’ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা

ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে বন্ধু নির্বাচনে সজাগ থাকতে হবে বলে উল্লেখ করেন মনোবিজ্ঞানী ফারজানা ফাতেমা রুমী

আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:০৯ পিএম

বেসরকারি সংস্থা “গ্রীন ভয়েস” এর আয়োজনে ময়মানসিংহে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্বদ্যালয়ে শুরু হয়েছে ৭ দিনের “আত্মরক্ষা কৌশল ও আত্মবিশ্বাস উন্নয়ন” বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা।

৫৫ জন নারী শিক্ষার্থী এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করছেন। কর্মশালাটি পরিচালনা করছেন সেন্সি বাদল লাল দাশ।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বম্বর) কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।

কর্মশালায় গত ৯ ও ১০ ডিসেম্বের আত্মবিশ্বাস উন্নয়নের ২টি সেশন পরিচালনা করেন মনোবিজ্ঞানী ফারজানা ফাতেমা (রুমী)। এ সময় বহ্নিশিখার মূল সংগঠন গ্রীন ভয়েস এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সমন্বয়ক মো. আলমগীর কবির উপস্থিত ছিলেন।

সেশনের শুরুতে মনোবিজ্ঞানী ফারজানা ফাতেমা (রুমী) শুরুতেই সকল অংশগ্রহণকারীর বর্তমান মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত অবস্থা জানতে চান।

তিনি বলেন, “আমাদের শিক্ষাজীবনে ভালো ফলাফল, অর্থনৈতিক অস্বচ্ছলতা, পরিবার থেকে দূরে থাকা, প্রেমের সম্পর্ক, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সব কিছু নিয়ে আমরা অনেক দুশ্চিন্তা করি। আমরা চাই সব একসাথে রাতারাতি সব সমস্যার সমাধান করে ফেলি। কিন্তু আমরা যদি আমাদের সমস্যাগুলোকে লিখিত আকারে সাজাই যে এই মুহুর্তে কোন বিষয়টিকে আমি সবচেয়ে বড় সমস্যা ভাবছি এবং এভাবে ক্রমান্বয়ে সাজাই যে কোনটির সমাধান সবচেয়ে বেশি জরুরি। সমস্যা এলে আমরা ডিনাইল স্টেজে চলে যাই, তাই একই সাথে রেগে যাই, মন খারাপ হয়, অন্যকে দোষারোপ করি, ভাবি আমার সাথেই কেনো এমন হয়! এটাকে বলে "ভিক্টিম মুড"-এ চলে যাওয়া। তাই সমস্যাকে প্রথমে গ্রহণ করে নিতে হবে এবং মনকে শান্ত রাখার জন্য ডীপ ব্রিদিং প্র‍্যাক্টিস করতে হবে।”

তিনি বলেন, “মনোযোগ বাড়াতে ২৪ ঘণ্টার লিখিত রুটিন মেনে পড়ালেখা এবং অন্যান্য কাজ করতে হবে। জীবনের লক্ষ্য পূরণের জন্য আগামী ২-৩ বছর কীভাবে এগিয়ে যাওয়াযায় সেরকম একটা ছক এঁকে নিতে হবে। বড় কোনো লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য ছোট ছোট লক্ষ্য নির্ধারণ করতে হবে। সম্ভাব্য সমাধানে সহায়তা করার জন্য কারো পরামর্শ গ্রহণ করতে হলে সে দরজা খোলা রাখতে হবে। আমাদের বন্ধু তৈরি করতে হবে যেনো যেকোনো সমস্যায় আমরা কথা বলতে পারি।” এই মনোবিজ্ঞানী আরও বলেন, “যেহেতু এখানে উপস্থিত সবাইকে ছাত্র/ছাত্রী নিবাসে থাকতে হয় তাই ছোট বড় সবার সাথে একটি পারিবারিক বন্ধন তৈরি করতে কী কী করা যায় তা ভাবতে হবে। নিজের সম্পর্কে ইতিবাচক ভাবনা তৈরি করতে হবে এবং নিজের নেতিবাচক দিকগুলো নিয়ে গর্ব বোধ করা যেমন- ‘আমি খুব রাগী, আমার যা ভালো লাগে তাই করি, আমি খুব উল্টা পালটা' এরকম বিবৃতি দেওয়া থেকে দূরে থাকতে হবে। কেননা জীবনটা এই ক্যাম্পাসেই সীমাবদ্ধ নয়। আমার আত্মপরিচয়ই আমাকে আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে তাই ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে বন্ধু নির্বাচনেও সজাগ থাকতে হবে। মনোসেবা কিংবা মনোচিকিৎসা নিতে কখনোই দ্বিধা বোধ করা যাবে না।”

এ সময় অংশগ্রহণকারীদের দেওয়া মনের কথা সংক্ষিপ্ত লিখিত আকারের চিরকুট পড়ে শোনান গ্রীন ভয়েসের রাজশাহী বিভাগের বিভাগীয় সমন্বয়ক ফাহমিদা নাজনীন তিতলী। 

এতে গোপনীয়তা রক্ষা করে নাম না জেনে সমস্যাগুলো নিয়ে একটি দলগত আলোচনা পরিচালনা করতে সাহায্য করেন গ্রীন ভয়েসের ইডেন কলেজের সমন্বয়ক ইসরাত জাহান রাহা, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান সমন্বয়ক হাফসা তাসনিম। এছাড়াও সহোযোগিতায় ছিলেন মৌরী, ফিজা, পোলেন, অয়ন, বকুল, রায়হান, নাফিস, ওমর ফারুক, অহি, আল-আমিন প্রমুখ।

About

Popular Links