Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

 

ঢামেকে ‘আগুন’ আতঙ্ক, হুড়োহুড়িতে রোগীর মৃত্যু

তিনি শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঢামেকে ভর্তি ছিলেন

আপডেট : ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৭:২৬ পিএম

ঢাকা মেডিকেল কলেজের ডায়ালাইসিস সেন্টারে ‘‘আগুন'' লেগেছে শুনে হুড়োহুড়ি শুরু হয় রোগী ও স্বজনদের মধ্যে। এ সময় এক রোগী প্রাণ হারিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন তার স্বজনরা। মৃত জসিম উদ্দিন (৬০) শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে ভর্তি ছিলেন।

রবিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টার দিকে ঢামেক হাসপাতালের শীততাপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের তার পুড়ে (এসি) ধোঁয়া বেরোলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে রোগীদের মধ্যে।

মৃত জসিম উদ্দিনের বাড়ি কুমিল্লার তিতাস উপজেলার শ্রী নয়নকান্দি গ্রামে।  

তার ছেলে মফিজ উদ্দিন বলেন, “শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে আমার বাবা গত শনিবার থেকে নতুন ভবনের ষষ্ঠ তলায় মেডিসিন বিভাগে ভর্তি ছিলেন। আজ (বৃহস্পতিবার) বিকেলে ওই ভবনের চতুর্থ তলায় ডায়ালাইসিস সেকশন থেকে ধোঁয়া দেখে আতঙ্কে তাড়াহুড়ো করে নামাতে গেলে তিনি আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন।”


আরও পড়ুন- ঢামেক ডায়ালাইসিস সেন্টারে এসির তার পুড়ে ধোঁয়া, আতঙ্ক


“জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসক বিকাল পৌনে ৪টার দিকে ইসিজি করান। তখন তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়।”

মৃতের স্বজনরা মরদেহ গ্রামে নিয়ে গেছেন। জসিম উদ্দিন চার মাস ধরে শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন বলে জানিয়েছেন তার ছেলে।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল নাজমুল হক ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “যে ওয়ার্ডে আগুনের ঘটনা ঘটে, তার দুই ফ্লোর উপরেই ওই রোগী ছিলেন। তাকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছিলভ নিমুনিয়া ছিল, কিডনির সমস্যা, কার্ডিয়াক সমস্যা  ছিল।”

তিনি বলেন, “রোগীর স্বজনরা নিচে নিয়ে যেতে চাইলে আমাদের নার্সরা নিষেধ করেন। কিন্তু তারা (স্বজনরা) আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে রোগীকে নিচে নিয়ে যান। সে কারণে তিনি আরও অসুস্থ হয়ে যান। পরে জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা করে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।”

About

Popular Links