Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মুক্তি‌যুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী: জাতির জনককে হত্যার পর কেউ প্রতিবাদ করেনি

‘বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করার পর বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী যদি এ প্রতিবাদ না করতেন, তাহলে ইতিহাসে আমরা বাঙালি জাতি হিসেবে কলঙ্কিত থাকতাম’

আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:১২ পিএম

মুক্তি‌যুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, “জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করার পর কেউ প্রতিবাদ করেনি। আমরা সব মেনে নিয়েছি। আমরা ইতিহাসের কাছে দায়বদ্ধ। বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বে সেদিন এই হত্যার প্রতিবাদ ও প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য সবোচ্চ চেষ্টা করা হয়েছিল। জাতির পক্ষ থেকে আমি তাদের স্যালুট জানাই।”

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় টাঙ্গাইল শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনা‌রে কা‌দে‌রিয়া বা‌হিনীর অস্ত্র জমাদানের ৫০ বছর উদযাপন উপল‌ক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আ.ক.ম মোজা‌ম্মেল হক বলেন, “১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করার পর বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী প্রতিবাদ করেছিলেন। তিনি যদি এ প্রতিবাদ না করতেন, তাহলে ইতিহাসে আমরা বাঙালি জাতি হিসেবে কলঙ্কিত থাকতাম। সেই প্রতিবাদ আমাদের সবাইকে কলঙ্কমুক্ত করেছে।”

তিনি আরও বলেন, “বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বে যারা সেদিন জীবন বাজি রেখে প্রতিরোধ গড়ে তুলে প্রতিবাদ করেছিলেন, তাদের কাছে জাতি চিরকৃতজ্ঞ। জাতীয়ভাবে আমরা মনে করি এটি একটি ঐতিহাসিক দিন। বঙ্গবন্ধু ডাক দেওয়ার আগেই আপনারাই সর্বপ্রথম অস্ত্র জমা দিয়েছিলেন।”

কাদে‌রিয়া বা‌হিনীর অস্ত্র জমাদানের ৫০ বছর উদযাপন ক‌মি‌টির সভাপ‌তি এ এম এনায়েত করিমের সভাপ‌তি‌ত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সাবেক বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আব্দুল ল‌তিফ সি‌দ্দিকী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপ‌তি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সি‌দ্দিকী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কা‌ন্তি দাস, বীর মু‌ক্তি‌যোদ্ধা হা‌মিদুল হক মোহন, ক‌বি বুলবুল খান মাহবুব, ক‌বি আল মুজা‌হিদী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হা‌বিবুর রহমান খোকা বীর প্রতীক, বঙ্গবীর কাদের সি‌দ্দিকীর সহধর্মিণী নাস‌রিন কাদের সি‌দ্দিকী প্রমুখ উপ‌স্থিত ছিলেন। এছাড়া, কাদে‌রিয়া বা‌হিনীর বীর মুক্তিযোদ্ধারাও অনুষ্ঠানে উপ‌স্থিত ছিলেন।

About

Popular Links