Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কক্সবাজার পাসপোর্ট অফিসের দুই দালালকে হাতেনাতে ধরলো দুদক

অভিযানের সময় পাসপোর্ট কার্যালয়ের তিন কর্মচারী পালিয়ে গেছেন

আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৮:৩৫ পিএম

কক্সবাজারের আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) একটি টিম। এ সময় পাসপোর্ট অফিসে অনিয়মের মাধ্যমে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগে দুই দালালকে ১০ দিনের সাজা দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানের সময় অফিসের তিন কর্মচারী পালিয়ে গেছেন।

সোমবার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে কক্সবাজার শহরের মুক্তিযোদ্ধা মাঠ সংলগ্ন এলাকার আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ে এ অভিযান চালানো হয়েছে।

বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন দুদকের কক্সবাজার জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (এডি) মো. রিয়াজ উদ্দিন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ বাহারছড়া এলাকার বাসিন্দা আব্দুস সবুর (৩৩) ও পেকুয়া উপজেলার শিলখালী এলাকার বাসিন্দা মনিরুদ্দিন আহমেদ (৬০)।

তবে তদন্তে গোপনীয়তার স্বার্থে কার্যালয়ের পলাতক তিন আসামির নাম প্রকাশ করতে অসম্মতি জানান দুদক কর্মকর্তা।

রিয়াজ উদ্দিন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “সম্প্রতি কক্সবাজার আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ে সংঘবদ্ধ একটি চক্রের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও হয়রানির মাধ্যমে সেবাগ্রহীতাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের বিষয়ে অভিযোগ ছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিকেলে দুদকের একটি দল অভিযান চালায়। এ সময় পাসপোর্ট অফিসের তিন কর্মচারী পালিয়ে গেলেও দুই দালালকে হাতেনাতে আটক করা হয়।”

তিনি জানান, আটক দালালরা স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছেন, তারা সেবাগ্রহীতাদের নানা ফাঁদে ফেলে পাসপোর্ট অফিসের কতিপয় কর্মচারীদের যোগসাজশে হয়রানির মাধ্যমে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ে জড়িত। আদায় করা অর্থের একটি অংশ কর্মচারীরা পেতেন। আটক দালালদের কাছ থেকে সেবাগ্রহীতা বিভিন্ন লোকজনের কিছু কাগজ ও নথিপত্রসহ নানা আলামত পাওয়া গেছে।

আটকদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধাদান এবং সেবাগ্রহীতাদের হয়রানির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবা মঞ্জুর মৌনার নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত প্রত্যেককে ১০ দিন করে কারাদণ্ড দিয়েছেন।

About

Popular Links