Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পুরুষ নির্যাতন আইনের দাবিতে মানববন্ধ‌ন

বক্তারা জানান, কিছু নারী অর্থের লোভে মোটা অঙ্কের দেনমোহরে একের পর এক বিয়ে করছেন। এরপর মিথ্যা অজুহাত দেখিয়ে আদালতে মামলা দিয়ে দেনমোহরের টাকা ও খোরপোষের বাণিজ্য করছেন

আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১:২৮ পিএম

বাংলাদেশের ৭৫% বিবাহিত পুরুষ মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়। তাই পুরুষ নির্যাতন বন্ধে আইনের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে “জাতীয় পুরুষ নির্যাতন প্রতিরোধ ফাউন্ডেশন” নামের একটি সংগঠন।

শুক্রবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে “জাতীয় পুরুষ নির্যাতন প্রতিরোধ ফাউন্ডেশন” আ‌য়ো‌জিত এক মানববন্ধ‌নে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, “সামাজিক ও লোক চক্ষুর অন্তরালে লজ্জার ভয়ে অনেক পুরুষ নির্যাতনের বিষয় লোক সমাজে প্রকাশ করতে চান না। অনেক পুরুষ লজ্জার কারণে আত্মসম্মানের ভয়ে প্রকাশ করেন না। বিবাহিত অনেক পুরুষ নির্যাতনের শিকার হওয়ার বিষয়ে একমত।”

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কিছু বেসরকারি সংস্থা আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস পালন করছে জানিয়ে বক্তারা বলেন, “বিভিন্ন দেশে কিছু বেসরকারি সংস্থা আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস পালন করছে। ২০১৬ সালের ১৯ নভেম্বর থেকে বাংলাদেশ মেনস রাইটস ফাউন্ডেশন পুরুষ দিবস পালন করছে। বাংলাদেশে একের পর এক পুরুষ নির্যাতন বেড়েই চলেছে। পুরুষ মুখ বুজে সহ্য করে যাচ্ছে। কারণ, তারা কোনো আইনি সহায়তা পাচ্ছে না। তাদের জন্য কোনো আইন নেই।”

বক্তারা জানান, কিছু নারী অর্থের লোভে মোটা অঙ্কের দেনমোহরে একের পর এক বিয়ে করছেন। এরপর মিথ্যা অজুহাত দেখিয়ে আদালতে মামলা দিয়ে দেনমোহরের টাকা ও খোরপোষের বাণিজ্য করছেন। এমন বহু পুরুষ আছেন যারা নিরপরাধ হয়েও অপরাধী।”

নারী পুরুষ সমান অধিকার থাকলেও পুরুষের জন্য কোনো আইন নেই উল্লেখ করে তারা বলেন, “দেশে প্রচলিত আইনে নারী ও শিশু নির্যাতনের পাশাপাশি পুরুষ নির্যাতন আইন হওয়া জরুরি। অবিলম্বে পুরুষ নির্যাতন আইন তৈরির দাবি জানাচ্ছি।”

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পুরুষ নির্যাতন প্রতিরোধ ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট কাজী ইলিয়াসুর রহমান, অ্যাডভোকেট সঞ্চিতা রানী পাল, মো. ইয়াছিন, হৃদয় ইসলাম চুন্নু, মো. খলিলুর রহমান, নুসরাত জাহান মীম, মহাসচিব মো. খলিলুর রহমান হাওলাদার প্রমুখ।

About

Popular Links