Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সন্তানকে হত্যায় মায়ের আমৃত্যু কারাদণ্ড, প্রেমিকের ফাঁসি

পরকীয়া প্রেমের জেরে বিলকিস তার প্রেমিকের সঙ্গে মিলে শিশুটিকে হত্যা করে

আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯:১৫ পিএম

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার পাগলা এলাকায় পরকীয়া প্রেমের জেরে এক বছরের শিশুকে হত্যা ও লাশ গুমের অপরাধে বিলকিস বেগম (২৪) নামে এক নারীকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। তার পরকীয়া প্রেমিক সোলাইমানকে (৩২) মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে।

রবিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক উম্মে সরাবন তহুরা এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় দণ্ডপ্রাপ্ত দুজনই উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত বিলকিসের বাড়ি পটুয়াখালীতে এবং সোলাইমান জামালপুর জেলার বাসিন্দা।

মামলার নথি সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার পাগলার পশ্চিম নন্দলালপুর এলাকার একটি চারতলা ভবনের সীমানা প্রাচীরের ভেতর থেকে মরিয়াম নামে এক বছর বয়সী কন্যা শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

আদালত পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান জানান, মামলাটির তদন্তে পুলিশ জানতে পারে নিহতের মা ও তার পরকীয়া প্রেমিক মিলে শিশুটিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এরপর তারা লাশ গুমের জন্য একটি ভবনের সীমানা প্রাচীরের ভেতর ফেলে রাখে। কিন্তু লাশ পচে গন্ধ বের হলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করলে দুইজনই আদালতে ১৬৪ ধারায় অপরাধ স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়। পরের বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি পুলিশ দুইজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর মাকসুদা আহমেদ জানান, পরকীয়া প্রেমের জেরে বিলকিস তার প্রেমিকের সঙ্গে মিলে শিশুটিকে হত্যা করে। এই মামলার সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে মাকে আমৃত্যু কারাদণ্ড ও প্রেমিককে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। 

একইসঙ্গে উভয়কে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। হত্যার পর লাশ গুমের অপরাধে পৃথক আরেকটি ধারায় আসামিদের আরও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

About

Popular Links