Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অবৈধ সংযোগ উচ্ছেদ ও বিচ্ছিন্নকরণ: সম্মাননা পেলেন বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনের ৯ কর্মকর্তা

প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অনুষ্ঠানের সভাপতি শংকর মজুমদার এ সম্মাননা প্রদান করেন

আপডেট : ০২ মার্চ ২০২৩, ০৫:০৩ পিএম

বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের আওতাধীন এলাকায় অবৈধ গ্যাস পাইপলাইন উচ্ছেদ ও অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ সাফল্যের জন্য কোম্পানিটির ৯ জন কর্মকর্তাকে সম্মাননা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অনুষ্ঠানের সভাপতি শংকর মজুমদার এ সম্মাননা প্রদান করেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন প্রকৌশলী ফিরোজ আলম। এ সময় মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মো. শাহনুর আলম, মহাব্যবস্থাপক (অপারেশন) প্রকৌশলী সাইফুল আলম, মহাব্যবস্থাপক (ইএস) প্রকৌশলী মর্তুজা রহমান, মহাব্যবস্থাপক (বিপণন) মো. সোলায়মান, মহাব্যবস্থাপক (অর্থ ও হিসাব) মো. মিজানুর রহমান, মো. এনামুল করিম চৌধুরী ও কোম্পানির সচিবসহ সব উপ-মহাব্যবস্থাপকরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি ও কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক শংকর মজুমদার বলেন, অবৈধ পাইপ লাইন উচ্ছেদ অভিযান খুবই ঝুঁকিপূর্ণ একটি কাজ। অভিযানে অংশগ্রহণকারী সকলেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান পরিচালনায় সাহসী ভূমিকা পালন করায় কোম্পানির ৯ জন কর্মকর্তা যথাক্রমে মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মো. শাহনুর আলম, উপ-মহাব্যবস্থাপক (ভিজিল্যান্স) প্রকৌশলী ছগীর আহমেদ, উপ-মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মো.

শাহজাহান, উপ-মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) মো. বেলায়েত হোসেন, ব্যবস্থাপক (ভিজিল্যান্স) মো. জসীম উদ্দিন আহমেদ, ব্যবস্থাপক (সেফটি এন্ড সি.) মো. আনিছুর রহমান, ব্যবস্থাপক (ভিজিল্যান্স) মোহাম্মদ সেলিম খান, সহকারী প্রকৌশলী (ভিজিল্যান্স) মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান ও সহকারী প্রকৌশলী (ভিজিল্যান্স) শাহ মো. সাজ্জাদ হোসেনকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। 

অনুষ্ঠানে উপ-মহাব্যবস্থাপক (ভিজিল্যান্স) বলেন, অবৈধ গ্যাস লাইন উচ্ছেদ অভিযানের সময় নানামুখী সমস্যার মোকাবিলা করতে হয়েছে। বিশেষ করে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করার সময় অবৈধ গ্রাহক কর্তৃক প্রাণনাশের হুমকির সম্মুখীন হতে হয়েছে বারবার। তারপরও আমরা এই কার্যক্রম পরিচালনায় কখনোই পিছপা হইনি। 

উপ-মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) মো. বেলায়েত হোসেন বলেন, অভিযানের সময় অনেক বাধার সম্মুখীন হতে হয়। সব বাধা পেরিয়ে প্রায় ১০০টি অভিযান পরিচালনা হয়েছে। ভবিষ্যতেও এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

About

Popular Links