Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বরিশালের হাসপাতালে ডায়রিয়া আক্রান্ত শিশুদের দেওয়া হলো মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন

স্যালাইন দেওয়ার পর পরই শিশুদের পেট ফুলে উঠতে থাকে এবং বমি করতে শুরু করে

আপডেট : ০৫ মার্চ ২০২৩, ০৭:০১ পিএম

বরিশালের গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়া আক্রান্ত দুই শিশুকে মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দুই নার্সকে কারণ দর্শানোর নোটিশ এবং বিষয়টি তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

শনিবার (৪ মার্চ) দুপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত দুই শিশুকে মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন দেওয়া হয়।

বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. মনিরুজ্জামান।

আক্রান্ত দুই শিশুর অভিভাবকরা জানান, শনিবার সকালে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত তছলিম বালী (৯ মাস) ও সুব্রত কান্তি পালকে (১৭ মাস) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকের পরামর্শে হাসপাতালের নার্স ঝুমা মিস্ত্রি ও কণিকা হালদার ওই শিশুদের শরীরে স্যালাইন দেন। তবে সেই স্যালাইনের মেয়াদ এ বছরের জানুয়ারি মাসে শেষ হয়ে গেছে। স্যালাইন দেওয়ার পর পরই দুই শিশুরই পেট ফুলে উঠতে থাকে এবং তারা বমি করতে শুরু করে। একপর্যায়ে রোগীর স্বজনরা বুঝতে পারেন স্যালাইনের মেয়াদ নেই।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী দুই শিশুর স্বজনরা চিকিৎসকের কাছে গিয়ে ভুল চিকিৎসার প্রতিকার দাবি করেন।

গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. মনিরুজ্জামান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “বিকেল ৪টার দিকে জানতে পারি দুই শিশুকে মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন দেওয়া হয়েছে। তবে তা দেওয়া উচিত হয়নি। বর্তমানে সেই শিশুদের যথাযথ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।”

তিনি ‍আরও বলেন, “অভিযুক্ত দুই নার্সকে শোকজ করা হয়েছে। এছাড়া মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন কীভাবে এলো এবং কীভাবে দেওয়া হলো তা খতিয়ে দেখতে ডা. বিমল বিশ্বাসকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য কমিটিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

About

Popular Links