Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে ইসির নিশ্চয়তা

রাজনৈতিক সমস্যা রাজনৈতিকভাবে সমাধান করার আহ্বান জানান নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর 

আপডেট : ১৬ মার্চ ২০২৩, ০৮:৪২ পিএম

বর্তমান সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন করা সম্ভব বলে দাবি করেছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মো. আলমগীর। এমনকি, সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন আয়োজনের গ্যারান্টিও দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৬ মার্চ) নির্বাচন ভবনে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মো. আলমগীর বলেন, “আমরা গ্যারান্টি দিচ্ছি নির্বাচন অবশ্যই সুষ্ঠু হবে।”

নির্বাচন কমিশনার বলেন, “সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আমি কোনো আপস করব না; প্রয়োজনে নিজেই দায়িত্ব থেকে সরে যাব। আমরা যতক্ষণ দায়িত্বে আছি, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কাজ করে যাব।”

বিএনপিসহ সংলাপে সাড়া না দেওয়া দলগুলোকে আরেক দফা ডাকার ইঙ্গিতও দেন মো. আলমগীর। রাজনৈতিক সমস্যা রাজনৈতিকভাবে সমাধান করারও আহ্বান জানান নির্বাচন কমিশনার।

মো. আলমগীর বলেন, “এখানে নির্বাচন কমিশনের কিছু করার নেই। এটা রাজনৈতিক সমস্যা। রাজনৈতিক সমস্যা রাজনৈতিকভাবে সমাধান করতে হবে। এ বিষয়ে আমাদের কিছু করার নেই। সংবিধানও সে দায়িত্ব আমাদের দেয়নি।”

তিনি জানান, নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব হচ্ছে ভোট সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করা। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে থেকেই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড থাকা। নির্বাচনে যারা অংশ নেবেন তারা যেন স্বাধীনভাবে প্রচারণা চালাতে পারেন, ভোটাররা যেন ভোটকেন্দ্রে এসে নিজের পছন্দমতো প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন, ভোট গণনা যেন সুষ্ঠুভাবে হয়, নির্বাচনের ফল যেন সঠিকভাবে প্রতিফলিত হয়, সেটা নিশ্চিত করা ইসির দায়িত্ব।

মো. আলমগীর বলেন, “দায়িত্ব পালনের প্রতি আমরা শতভাগ অঙ্গীকারবদ্ধ। আমরা সেটা করব। আমরা শুধু এটুকু বলতে পারি, যে ধরনের সরকারই থাকুক না কেন, বর্তমান ইসি শতভাগ সৎ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করবে।”

এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার বলেন, “কমিশনের ওপর বিরোধী পক্ষ কেন আস্থা রাখতে পারছে না, সেটা তারাই ভালো বলতে পারবেন। তবে ইসির এক বছরের কার্যক্রম দেখে তারা কি বলতে পারবে কমিশন নিরপেক্ষতা ভঙ্গ করেছে অথবা কারও প্রতি দ্বিমুখী আচরণ হয়েছে?”

মো. আলমগীর বলেন, “বিশ্বের প্রায় সব দেশেই দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়। এটা (সুষ্ঠু নির্বাচন) নির্ভর করে নির্বাচন কমিশন কতটা সঠিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করে, তার ওপর। আমরা যদি দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করি এবং সেটা আমাদের ইচ্ছা আছে, তাহলে অবশ্যই একটা সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব।”

দলগুলোর মধ্যে মতবিরোধ নিষ্পত্তিতে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে কোনো উদ্যোগ নেই। তবে নির্বাচনের আগে দলগুলোর সঙ্গে আরেক দফা বৈঠক হবে বলে জানান মো. আলমগীর।

About

Popular Links