Saturday, June 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পল্লী চিকিৎসকের সনদ নিয়ে অপারেশন, এক বছরের কারাদণ্ড

এর আগেও অভিযান চালিয়ে তাকে জেল-জরিমানা করা হয়েছিল, কিন্তু তিনি জেল থেকে ছাড়া পেয়ে পুনরায় তার অপচিকিৎসা চালিয়ে যেতে থাকেন

আপডেট : ১৬ মার্চ ২০২৩, ০৮:১৬ পিএম

বাগেরহাটে মো. দেলোয়ার হোসেন নামে এক কথিত চিকিৎসককে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পল্লী চিকিৎসকের সনদ নিয়ে নিয়মবহির্ভূতভাবে পাইলস ও পলিপাসসহ বিভিন্ন রোগের অপারেশন করার অপরাধে এই দণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (১৬ মার্চ) দুপুরে বাগেরহাট শহরের রেল রোড এলাকায় ওই চিকিৎসকের চেম্বারে অভিযান চালিয়ে বাগেরহাট জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার রোহান সরকার এই আদেশ দেন। একইসঙ্গে আরও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে বাগেরহাট সিভিল সার্জন অফিসের মেডিক্যাল কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

আদালত পরিচালনাকারী রোহান সরকার ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “পল্লী চিকিৎসকের সনদ নিয়ে দেলোয়ার হোসেন নামের এ ব্যক্তি বেশ কয়েক বছর ধরে বাগেরহাট সদর ও মোড়েলগঞ্জ উপজেলায় চেম্বার খুলে চিকিৎসা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। এর আগেও অভিযান চালিয়ে তাকে জেল-জরিমানা করা হয়েছিল, কিন্তু তিনি জেল থেকে ছাড়া পেয়ে পুনরায় তার অপচিকিৎসা চালিয়ে যেতে থাকেন।”

তিনি আরও বলেন, “তিনি মূলত একজন পল্লী চিকিৎসক। ওই সনদ দিয়ে তিনি পাইলস, অর্শ, ভগন্দর, গেজ ও নাকের পলিপাসসহ বিভিন্ন রোগের অপারেশনে বিশেষ অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ডাক্তার পরিচয় দিয়ে থাকেন এবং অপারেশন করেন।”

বাগেরহাট সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. মেহেদী হাসান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “অপারেশনের জন্য চিকিৎসা বিষয়ক যেসব ডিগ্রির প্রয়োজন হয়, তার কোনোটাই নেই দেলোয়ারের। এমনকি অপারেশনের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিও নেই তার। তার চিকিৎসা ব্যবস্থা কোনোটাই বিজ্ঞান সম্মত নয়। এই চিকিৎসার ফলে মানুষের জীবনের ঝুঁকি তৈরি হতো।”

তিনি রোগীদের সরকারি হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

About

Popular Links