Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কক্সবাজার ফেরত তরুণীর পেটে ৩,২৪০ পিস ইয়াবা

ইয়াবার চালানটি বিনোদপুরের এক ব্যবসায়ীর কাছে হস্তান্তর করতে নোয়াখালী আসেন ওই তরুণী

আপডেট : ১১ এপ্রিল ২০২৩, ০৪:৪৩ পিএম

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার ইয়ারপুর এলাকার ফেনী-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে অভিযান চালিয়ে সীমা আক্তার (২২) নামে এক তরুণীকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। এ সময় তার পেটের মধ্যে বিশেষ কায়দায় বহন করা ৩,২৪০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) দুপুরে তার বিরুদ্ধে সুধারাম মডেল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেপ্তার সীমা আক্তার কক্সবাজারের টেকনাফের হোয়াইটকং ইউনিয়নের বাসিন্দা।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর জানিয়েছে, কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে ইয়াবা নিয়ে নোয়াখালীর বিনোদপুর এলাকায় যাচ্ছিলেন ওই তরুণী। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাতে ফেনী-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে তল্লাশি চৌকি বসানো হয়। পরে চট্টগ্রাম থেকে মাইজদীর উদ্দেশে ছেড়ে আসা “বাঁধন পরিবহন” নামের একটি বাসে তল্লাশি চালানো হয়। ওই বাস থেকে সীমা আক্তার নামের ওই তরুণীকে তার শিশু সন্তানসহ আটক করা হয়। পরে তার ব্যাগ ও শরীর তল্লাশি চালিয়ে কোনো মাদকদ্রব্য না পাওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে স্বীকার করেন, তার পেটের মধ্যে ইয়াবা রয়েছে।

পরে তাকে মাইজদীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে এনে চিকিৎসকের সহযোগিতায় ওষুধ সেবনের মাধ্যমে ৭২টি প্যাকেটে ইয়াবা জব্দ করা হয়। প্রতি প্যাকেটে ৪৫ পিস করে মোট ৩,২৪০ পিস ইয়াবা পাওয়া গেছে।

জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল হামিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সীমা আক্তার পেটে করে টেকনাফ থেকে ইয়াবা এনে জেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করতেন। ইয়াবার চালানটি বিনোদপুরের এক ব্যবসায়ীর কাছে হস্তান্তর করতে নোয়াখালী আসেন। সীমা ও বিনোদপুরের ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে।

About

Popular Links