Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের যুগে প্রবেশ করছে দেশ

পহেলা বৈশাখ থেকে শতভাগ ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইনে দিতে হবে। নগদ টাকায় কোনো কর গ্রহণ করা হবে না

আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০২৩, ০৯:১৪ পিএম

দেশে কার্যকর হচ্ছে ক্যাশলেস ভূমি উন্নয়ন কর ব্যবস্থা । শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) বাংলা নববর্ষর প্রথম দিন থেকে এ ব্যবস্থা চালু হচ্ছে। এদিন থেকে শতভাগ ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইনে দিতে হবে। নগদ টাকায় কোনো কর গ্রহণ করা হবে না।

সম্প্রতি এ বিষয়ে ভূমি মন্ত্রণালয় একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। এর আগে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৯ মার্চ ঢাকায় অনুষ্ঠিত জাতীয় ভূমি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পহেলা বৈশাখ থেকে ক্যাশলেস ভূমি উন্নয়ন কর ব্যবস্থা কার্যকর করার ঘোষণা দিয়েছিলেন।

গণবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ভূমি উন্নয়ন কর আদায় কার্যক্রমকে অধিকতর জনবান্ধব করার লক্ষ্যে আগামী ১ বৈশাখ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ থেকে ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইন তথা মোবাইল পেমেন্ট, ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড পেমেন্ট বা ব্যাংকের মাধ্যমে আদায়ের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের সেবাকে ক্যাশলেস হিসাবে পূর্ণাঙ্গভাবে ডিজিটালরূপে বাস্তবায়নে সব ভূমি মালিককে (ব্যক্তি ও সংস্থাসমূহ) যথাসময়ে ও নিয়মিতভাবে ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ভূমি মালিক হিসেবে ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধে land.gov.bd ওয়েব পোর্টালে নাগরিক নিবন্ধন করে ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করে অনলাইনে দাখিলা সংগ্রহ করুন। বিস্তারিত জানতে ১৬১২২ নম্বরে কল করুন (বিদেশ থেকে +৮৮০ ৯৬১২৩ ১৬১২২) বা সরাসরি মেসেজ পাঠান www.facebook.com/land.gov.bd ফেসবুক পেজে।

যেভাবে অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করা যাবে

অনলাইনে ভূমিকর প্রদান করতে ভূমির মালিককে প্রথমে নিবন্ধন করতে হবে। জাতীয় পরিচয়পত্র, মুঠোফোন নম্বরসহ অন্যান্য তথ্য প্রদান করে নিবন্ধিত হতে হবে। একবার নিবন্ধিত হলে ওই ব্যক্তিকে ভবিষ্যতে আর নিবন্ধন করতে হবে না।

ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের জন্য বাংলাদেশের ভূমি মন্ত্রণালয় এলডিট্যাক্স নামে একটি অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করেছে। ভূমির মালিক এই অ্যাপে নিবন্ধন করবেন।

তিনটি প্রক্রিয়ায় নিবন্ধন

www.land.gov.bd অথবা ldtax.gov.bd ঠিকানার ওয়েব পোর্টালে প্রবেশ করে জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্মতারিখ ও মুঠোফোন নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

ভূমি মন্ত্রণালয়ের কল সেন্টারে ৩৩৩ অথবা ১৬১২২ নম্বরে ফোন করে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, জন্মতারিখ, ফোন নম্বর ও জমির তথ্য প্রদান করেও নিবন্ধন করা যাবে।

যেকোনো ইউনিয়ন ডিজিটাল অফিসে জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্মতারিখ ও খতিয়ান নম্বর ব্যবহার করেও নিবন্ধন করা যায়।

নিবন্ধনের পর এই পোর্টালে লগইন করে অথবা ইউনিয়ন ডিজিটাল অফিসে গিয়ে ভূমির উন্নয়ন কর দিতে পারবেন। এ সময় বিকাশ বা নগদের মতো মোবাইল ওয়ালেট ব্যবহার করে করের টাকা পরিশোধ করা যাবে। কর দেওয়ার পর ই–মেইলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি জমার রসিদ চলে আসবে। এটিই ভূমি উন্নয়ন করের রসিদ।

নিবন্ধনহীন ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি অফিসে খাজনা প্রদানের জন্য গেলে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা প্রথমেই তাঁর সব ডেটা এন্ট্রি করবেন। পাশাপাশি ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা নিজ উদ্যোগে হোল্ডিংমালিকদের তথ্য এন্ট্রি করবেন। নিবন্ধন সম্পন্ন হওয়ার পর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা নিজে ইউনিয়ন ভূমি অফিসে বসেই এলডি ট্যাক্স সিস্টেমে অন্যান্য ডেটা অনলাইনে এন্ট্রি করবেন।

About

Popular Links