Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নদী থেকে নালায় পরিণত বংশী রক্ষার দাবি ধামরাইবাসীর

ধামরাই সদর ইউনিয়নের শরীফবাগ বেইলি সেতুর কাছে নদী ভরাট করে নির্মাণকাজ চলছে

আপডেট : ০৭ মে ২০২৩, ০৩:৩৯ পিএম

ঢাকার সাভার-ধামরাইয়ের ওপর দিয়ে বয়ে চলা এককালের প্রমত্তা নদী বংশী কোথাও কোথাও স্রোতধারা হারিয়ে নালায় পরিণত হয়েছে। দখল-দূষণে বেহাল নদীটিকে রক্ষায় পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েছে ধামরাইবাসী।

এ দাবিতে রবিবার (৭ মে) ধামরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে একটি লিখিত আবেদন দেওয়া হয়েছে।

আবেদনে বলা হয়, “ধামরাই সদর ইউনিয়নের শরীফবাগ বেইলি সেতুর কাছে নদী ভরাট করে নির্মাণকাজ চলছে। এটি বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।”

এতে বলা হয়, “এই নদী ভরাট করে নির্মাণকাজের বিষয়টি স্থানীয়দের মাঝেও প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। সেখানে কোনো অবকাঠামো গড়ে উঠলে তা সুযোগসন্ধানী ভূমিদস্যুদের অন্য জায়গায় নদী দখলে উৎসাহিত করতে পারে। ফলে নদীর প্রকৃত মানচিত্র বরাবর সীমানা অনুযায়ী নির্মাণ কাজের বৈধতা না থাকলে তা বন্ধ করা অতীব জরুরি।”

এজন্য প্রশাসনের কাছে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিও জানানো হয়।

আবেদনে সই করেন, ধামরাই সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি মো. ইমরান হোসেন, বংশী নদী সুরক্ষা আন্দোলনের আহ্বায়ক মো. মাহমুদুর রহমান, প্রথম আলোর সহকারী সম্পাদক মাহমুদ ইকবাল, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মাহতাব উজ জাহিদ, বেসরকারি সংস্থা স্বপ্নডানার সভাপতি শাহরিয়ার ফেরদৌস রানা, বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি এসএম নজরুল ইসলাম।

ধামরাই সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি মো. ইমরান হোসেন বলেন, “সেখানে নদী দখল করে নদীবক্ষের ওপরে নির্মাণকাজ করা হচ্ছে। এটি নির্মাণ হলে আশপাশের আরও অনেকেই নির্মাণকাজ করতে সাহস করবে। ফলশ্রুতিতে নদীর অস্তিত্ব বিলীন হয়ে যাবে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা ও আগামী প্রজন্মের জন্য একটি সুন্দর ও বাসযোগ্য পরিবেশ বজায় রাখতে হলে নদীর স্বাভাবিক গতিপথ সচল রাখার বিকল্প নেই। সেজন্য  নদীর প্রকৃত সীমানা চিহ্নিত না করা পর্যন্ত সেখানে প্রাচীর নির্মাণ বন্ধ করার দাবি জানানো হয়েছে। তাছাড়াও ইতোমধ্যে বিভিন্ন স্থানে যারা নদীর তীর দখল করে স্থায়ী স্থাপনা নির্মাণ করেছে তাদের বিরুদ্ধেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার এখনই উপযুক্ত সময় বলে মনে করি।”

ধামরাইয়ের ইউএনও হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী বলেন, “ঘটনাস্থলে সার্ভেয়ার পাঠানো হয়েছে। নির্মাণকাজ যারা করছে তারা জমিটি নিজেদের বলে দাবি করেছেন। সার্ভেয়ারের প্রতিবেদন অনুযায়ী সেখানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

About

Popular Links