Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

রামপুরায় গৃহবধূকে মারধর করে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

স্বামী গিয়াসউদ্দিনকে আটক করেছে পুলিশ। ২০১২ সালে দুইজন ভালোবেসে বিয়ে করেন

আপডেট : ০৯ জুন ২০২৩, ০২:২০ পিএম

ঢাকার রামপুরা এলাকায় নিনা খান (৪৩) নামে এক গৃহবধূকে মারধর ও পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় স্বামী গিয়াসউদ্দিনকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৮ জুন) দুপুরে রামপুরার পূর্ব হাজীপাড়া এলাকায় বিসমিল্লাহ টাওয়ার নামে একটি ভবনে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। নিহত নিনা খানের বাড়ি নরসিংদীর পলাশ উপজেলার বিবন্দা গ্রামে।

স্বজনরা জানান, নিনা ও তার স্বামী উভয়েই অ্যালিকো নামের বিমা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। ২০১২ সালে ভালোবেসে বিয়ে করেন। তাদের কোনো সন্তান নেই।

মৃতের ভাগ্নি লিরা খান ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, নিনা রান্না করতে গিয়ে চুলার আগুনে পুড়ে মারা গেছেন বলে তার স্বামী বলেছেন। গিয়াসউদ্দিনের দাবি, ঘটনার সময় তিনি বাইরে ছিলেন, ফিরে এসে স্ত্রীকে দগ্ধ অবস্থায় দেখতে পান। সন্ধ্যায় তাকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান, হাসপাতালের আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

লিরা খানের অভিযোগ, “গিয়াস উদ্দিন তার স্ত্রীকে প্রায়ই নির্যাতন করতেন। আজও তিনি তাকে মারধর করেন এবং ধারালো কিছু দিয়ে মাথায় আঘাত করে শরীরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন।”

নিহতের মাথা ও কপালে রক্তাক্ত জখম ছিল বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে রামপুরা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তওফিকা ইয়াছমিন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “আমরা জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে খবর পেয়ে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে যাই। সেখান থেকে নিনা খানের মরদেহ উদ্ধার করি। ভুক্তভোগীর পরিবারের লোকজনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামীকে আটক করা হয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “বিষয়টি নিয়ে তদন্তা চলছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন ও তদন্তে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।”

About

Popular Links