Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আনন্দ ভ্রমণ শেষ হলো বিষাদে

গড়াই নদীতে নিখোঁজের ৪৪ ঘণ্টা পর ঢাবি শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছেন ডুবুরিরা

আপডেট : ১৪ জুন ২০২৩, ০৭:২৮ পিএম

বন্ধুরা মিলে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) একদল ছাত্র। সোমবার তারা ঢাকা থেকে মেহেরপুরের মুজিবনগরে যান। সেখান থেকে দুপুরে যান কুষ্টিয়া সার্কিট হাউসে। কিছুক্ষণ সেখানে বিশ্রাম নিয়ে লালন সাঁইয়ের মাজার ঘুরে রওনা হন শিলাইদহ কুঠিবাড়ির উদ্দেশে।

পথিমধ্যে কুমারখালী উপজেলার মাসউদ রুমী সেতু সংলগ্ন গড়াই নদীতে গোসল করতে নামেন পাঁচ বন্ধু। তাদের মধ্যে তিনজন প্রবল স্রোতে তলিয়ে যান। কোনোক্রমে বাকিরা তীরে ফিরে আসেন। নিখোঁজ হন তানভীর আহমেদ। 

গড়াইয়ে নিখোঁজ হওয়ার প্রায় ৪৪ ঘণ্টা পর ঢাবি ফার্মেসি বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী তানভীর আহমেদের (২৩) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। 

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচলক মো. জানে আলম ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, বুধবার (১৪ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১৫০ মিটার দক্ষিণে গড়াই নদী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস। 

তানভীরের বাড়ি বরগুনা সদরের চরকগাছিয়া গ্রামে। তারা বাবা আব্দুল মালেক বরগুনা সরকারি কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। 

মৃত ছাত্রের মামা অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম জানান, তানভীরসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ জন শিক্ষার্থী মাইক্রোবাস নিয়ে কুমারখালীতে ঘুরতে আসে। পথেমধ্যে গড়াই নদীতে নেমে তানভীর নিখোঁজ হয়। 

তার মরদেহ বরগুনায় দাফন করা হবে।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহসীন হোসাইন জানান, ঢাবি শিক্ষার্থীর মরদেহ ডুবন্ত নৌকায় আটকে ছিল। এ কারণে উদ্ধারে দেরি হয়। পরিত্যক্ত নৌকাসহ মরদেহ উদ্ধার করে নৌ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক মো. জানে আলম জানান, সোমবার গড়াই নদীতে ঢাবি শিক্ষার্থী নিখোঁজের খবর পেয়ে প্রথমে কুষ্টিয়া ও কুমারখালী ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট এবং সন্ধ্যায় খুলনা থেকে আসা পাঁচ সদস্যের ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযানে নামে। 

ওইদিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে অভিযান স্থগিত করা হয়। মঙ্গলবার সকাল ৮টার পর থেকে আবার উদ্ধারকাজ শুরু হয়।

About

Popular Links