Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সেন্ট্রাল হাসপাতালে সব ধরনের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ

অধ্যাপক ডা. সংযুক্তা সাহাকে চিকিৎসা কার্যক্রমের বাইরে রাখতে বলেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

আপডেট : ১৬ জুন ২০২৩, ০৬:৪৫ পিএম

রাজধানীর গ্রিন রোডের সেন্ট্রাল হাসপাতালে চিকিৎসকদের ভুলে নবজাতকের মৃত্যু এবং মায়ের মৃত্যুঝুঁকির ঘটনার পর হাসপাতালটির সব ধরনের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেইসঙ্গে অধ্যাপক ডা. সংযুক্তা সাহাকে চিকিৎসা কার্যক্রমের বাইরে রাখতে বলেছে সংস্থাটি।

শুক্রবার (১৬ জুন) এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। বাংলা ট্রিবিউনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে গত ১৪ জুন ধানমন্ডি থানায় ‘‘অবহেলাজনিত মৃত্যু”র মামলা করেন ভুক্তভোগীর স্বামী ইয়াকুব আলী সুমন। মামলায় ডা. শাহজাদী, ডা. মুনা, ডা.মিলি, সহকারী জমির, এহসান ও হাসপাতালের ম্যানেজার পারভেজকে আসামি করা হয়। এছাড়া মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়। মামলার পর বুধবার রাতেই ডা. শাহজাদী ও ডা. মুনাকে হাসপাতাল থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এই মামলায় দুই চিকিৎসক ডা. শাহজাদী মুস্তার্শিদা সুলতানা ও ডা. সংযুক্তা সাহা দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ১৫ জুন তাদের আদালতে হাজির করা হয়। তারা স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আফনান সুমীর আদালত ডা. শাহজাদীর এবং আরেক মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ফারাহ দিবা ছন্দার আদালত আসামি ডা. মুনার জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

উল্লেখ্য, সন্তান জন্মদানের সম্ভাব্য তারিখ অনুযায়ী গত ৯ জুন সেন্ট্রাল হাসপাতালে যান মাহবুবা রহমান আঁখি নামে এক প্রসূতি। তিনি ওই হাসপাতালের গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. সংযুক্তা সাহার পর্যবেক্ষণে ছিলেন। কথা ছিল, ডা. সংযুক্তার তত্ত্বাবধানেই আঁখির নরমাল ডেলিভারি হবে। কিন্তু ওই চিকিৎসক সেদিন হাসপাতালে ছিলেন না। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সে তথ্য গোপন করে তাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসকদের ভুলে নবজাতকের মৃত্যু হয় এবং মূত্রনালী কেটে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়েন আঁখি। প্রতারণা বুঝতে পেরে বিষয়টি তৎক্ষণাৎ জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ জানান ভুক্তভোগীর স্বামী। পরবর্তীতে তাকে ল্যাবএইড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে।

About

Popular Links