Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বনফুলে নিম্নমানের রসমালাই, শাখা মালিক কারাগারে

তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত

আপডেট : ০৫ জুলাই ২০২৩, ০৭:৩০ পিএম

নিম্নমানের মিষ্টি রাখায় প্রসিদ্ধ মিষ্টি প্রস্তুতকারী বনফুল এন্ড কোং-এর বান্দরবান শাখা মালিক খোরশেদ আলমকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বুধবার (৫ জুলাই) বান্দরবান চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এএসএম এমরান এ আদেশ দেন। সাজাপ্রাপ্ত ব্যবসায়ীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট  খলিলুর রহমান ঢাকা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ব্যবসায়ী খোরশেদ আলম বান্দরবান শহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ড ক্যাংভিটা এলাকার বাসিন্দা।

আদালত সূত্র জানায়, গত ১৫ জুন বেলা ১২টায় নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ শহরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সড়কে অবস্থিত বনফুল এন্ড কোং-এর শাখায় অভিযান চালায়। এতে নেতৃত্ব দেন কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা শুভ্র দাশ।

অভিযানে দেখা যায়, দোকানটিতে বিক্রির উদ্দেশ্যে নিম্নমানের মিষ্টি (রসমালাই) রাখা হয়েছে। এ অভিযোগে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে খোরশেদ আলমের বিরুদ্ধে মামলা করেন নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা শুভ্র দাশ।

মামলার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার খোরশেদ আলম জামিন আবেদন করেন। আদালত আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

জেলা নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা শুভ্র দাশ জানান, নিম্নমানের মিষ্টি বিক্রির জন্য রাখায় ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ করা হয়।

আদালতের পুলিশ পরিদর্শক একে ফজলুল হক ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের মামলায় বান্দরবান বনফুল এন্ড কোং এর মালিককে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।”

About

Popular Links