Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নতুন ১৯ রুটে চালু হতে পারে লঞ্চ-ফেরি

বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক বলেন, পদ্মা নদী পারাপারে যেসব ফেরি চলাচল করছে, সেগুলো নতুন রুটে স্থানান্তর করব। তবে ঈদ উল আজহা পর্যন্ত ফেরিগুলো থাকবে

আপডেট : ২৭ জুন ২০২২, ০৬:১০ পিএম

চালু হয়েছে বহুল প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতু। এ অবস্থায় মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও শরীয়তপুরের কাঁঠালবাড়ির মধ্যে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল ধীরে ধীরে সরিয়ে নেওয়ার কথা ভাবছে সরকার। নৌরুটে আয় ঠিক রাখতে ফেরি ও লঞ্চগুলোর জন্য নতুন রুটের চিন্তাও করছে সরকার। তবে আসন্ন ঈদ-উল-আজহার পরে এ বিষয়ে কাজ করা হবে বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) তথ্যানুযায়ী, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে এখন আটটি এবং পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ২১টি ফেরি চলাচল করছে। এ দুই রুটে মোট ফেরি আছে ২৯টি। যানবাহন পারাপার করে প্রতিবছর শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি ফেরি সার্ভিস দিয়ে ১০০ কোটি টাকা আয় হয়। একইভাবে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরি সার্ভিসে আয় হয় ২৫০ কোটি টাকা। 

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক এসএম আশিকুজ্জামান দৈনিক প্রথম আলোকে বলেন, “আমরা নতুন কয়েকটি রুট নিয়ে কাজ করেছি। পদ্মা নদী পারাপারে যেসব ফেরি চলাচল করছে, সেগুলো নতুন রুটে স্থানান্তর করব। তবে ঈদ-উল-আজহা পর্যন্ত ফেরিগুলো থাকবে। কোনো কারণে যানজট দেখা দিলে ফেরি কাজে লাগানো হবে।”

এ বিষয়ে লঞ্চ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, লঞ্চগুলো অন্য রুটে বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলে সরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে আলোচনা চলছে। বিকল্প ব্যবস্থা পাওয়া না গেলে স্বাভাবিকভাবেই লঞ্চগুলো বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

বিআইডব্লিউটিসির আওতায় এখন ছয়টি রুটে ফেরি চলে। এগুলো হচ্ছে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, আরিচা-কাজিরহাট, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি, চাঁদপুর-শরীয়তপুর, ভোলা-লক্ষ্মীপুর, লাহারহাট-ভেদুরিয়া। 

বিআইডব্লিউটিসির বহরে মোট ৫৩টি ফেরি আছে। এর মধ্যে ১০ থেকে ১৫টি ফেরির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। নতুন করে ১২টি ফেরি বিআইডব্লিউটিসির বহরে যোগ হচ্ছে। নতুন-পুরোনো মিলিয়ে ফেরিগুলো নতুন রুটে চালুর পরিকল্পনা করা হচ্ছে। 

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের ১৯টি নতুন ফেরি রুট

প্রস্তাবিত রুটের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হচ্ছে জামালপুরের বাহাদুরাবাদ থেকে গাইবান্ধার বালাসী ঘাট, মানিকগঞ্জের আরিচা থেকে পাবনার নরাদহ, পিরোজপুরের বেকুটিয়া থেকে চরখালী, কক্সবাজার থেকে মহেশখালী, বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ থেকে হিজলা এবং আমতলী থেকে বরগুনা। তালিকায় আছে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী থেকে জামালপুর পর্যন্ত ফেরি রুটও।

নতুন ফেরি রুট চালুর ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার তালিকায় আছে যমুনা নদীর কুড়িগ্রামের রৌমারী থেকে চিলমারী নৌরুট। এ রুটে ফেরি চালু হলে উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে জামালপুর, শেরপুর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জের যোগাযোগব্যবস্থা সহজ হবে।

এছাড়া আরিচা-খয়েরচর রুটে ফেরি চালু হলে পাবনা ও ঈশ্বরদী থেকে যমুনা সেতু হয়ে ঢাকার দূরত্ব ৮০ থেকে ৯০ কিলোমিটার কমবে।

About

Popular Links